প্রবাসীর স্ত্রী-সন্তান নিয়ে উধাও ছাত্রদল সভাপতি

৭:৩৬ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, নভেম্বর ৮, ২০১৬ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

মোঃ ইমাম উদ্দীন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি: ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার সদর ইউনিয়নের ভৈরব চৌধুরী গ্রামের কাতার প্রবাসী মোহাম্মদ নুর নবী সোহাগের স্ত্রী লাভলী অাক্তারের সাথে উপজেলা ছাত্রদল সভাপতি ছৈয়দ অালমের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। লাভলী এক সন্তানের জননী ও চর গনেশ গ্রামের কাতার প্রবাসী মো. বাবুলের মেয়ে।

porakia-pic_98519জানা যায়, উত্তর চর ছান্দিয়া গ্রামের ভুঞা বাড়ীর ছিদ্দিকুর রহমানের ছেলে ছৈয়দ অালম গত সোমবার রাতে তার প্রথম স্ত্রী, কন্যা সন্তানের জননী ও সোনাগাজী ছাবের পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা শারমিন বেগমকে তালাক দেয়। কারন জানতে চানতে চাইলে সে লাভলীকে বিয়ের কথা জানান।

শারমিন জানান, গত ১০ বছর ধরে বেকার ছৈয়দ, নিজের বাপের টাকায় পরিবার পরিচালনা করি, প্রায় ত্রিশ লক্ষ টাকা তাকে দিয়েছি। কিন্তু প্রতিনিয়ত সে পরকীয়ায় লিপ্ত।

লাভলীর মা জানান, ছৈয়দের সাথে তাদের পুরো পরিবাবের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক, এই সুবাদে সে নিয়মিত সময় অসময়ে যাতায়াত করতো, সোমবার রাতে লাভলীকে নিয়ে সে উদাও হয়। টেলিফোনে তাদের বিয়ের কথা জানায়।

dfffবিয়ের সাক্ষী সিরাজ জানান, ফেনীর একটি বাসায় তাদের বিয়ে এবং কাবিন হয়েছে। ৪ লক্ষ টাকা দেনমোহর ধার্য হয়।

উপজেলা ছাত্রদল এক নেতা জানান, এর অাগে উপজেলা নারীর সাথে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুলেছিল। পরে ওই নেত্রীর স্বামীর হুমকি পেয়ে পরকীয়া বন্ধ হয়।

জানা যায়, ১৯৯৭ সালে সোনাগাজী বাজারের ব্যাবসায়ী জাহাঙ্গীর মিয়ার মেয়ের শ্লীনতাহানীর দায়ে ছাবের পাইলট স্কুল থেকে বহিস্কার হন ছাত্রদল নেতা ছৈয়দ অালম।

Loading...