সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৪শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আইভীর পক্ষে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিলেন শামীম ওসমান

১২:১৪ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, নভেম্বর ২২, ২০১৬ জাতীয়

নারাআয়নগঞ্জ প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভীর পক্ষে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন শামীম ওসমান। শামীম ওসমান বলেছেন, আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্তই আমার সিদ্ধান্ত। তাই দলের প্রার্থী যেই হোক নৌকার পক্ষে কাজ করব। এদিকে নাসিকের মেয়র পদ থেকে আগামীকাল বুধবার পদত্যাগ করবেন বলে জানিয়েছেন এবারের মেয়র প্রাথী আইভী।

গতকাল সোমবার বিকালে ঢাকার একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে শামীম ওসমান এ কথা বলেন। বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। তবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে শামীম ওসমান ও সেলিনা হায়াৎ আইভীর সঙ্গে বিরোধ মেটাতে ধানমন্ডির কার্যালয়ে যে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল তা হয়নি।

এদিকে তৈমূর দলের প্রাথমিক প্রার্থীর তালিকায় থাকলেও নির্বাচনে অনীহার কারণে অপর দুই মনোনয়নপ্রত্যাশী (নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন) মধ্যে থেকে প্রার্থী দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। নাটকীয় কিছু না ঘটলে সাখাওয়াত হোসেনই হবেন বিএনপির প্রার্থী। গতকাল রাত ৯টায় নারাণগঞ্জের ২৭ ওয়ার্ডের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন খালেদা জিয়া। রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বৈঠক চলছিল।pik976926

জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন জানান, এই নির্বাচনটাকে আমরা চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। আমরা দেখব সরকার কতটুকু গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। তারা নিরপেক্ষ নির্বাচন করে কি না। নারায়ণগঞ্জের শতকরা ৬০ ভাগ লোক বিএনপির সমর্থক। যদি সুষ্ঠু নির্বাচন হয় তাহলে বিএনপি বিপুল ভোটে জয়ী হবে। দল থেকে আমাকে মনোনয়ন দেওয়া হলে জয়ের ব্যাপারে আমি আশাবাদী। আমি দীর্ঘদিন ধরে নারায়ণগঞ্জে অন্যায়, অত্যাচার ও অবিচারের বিরুদ্ধে আন্দোলন, সংগ্রাম করে আসছি এবং সাধারণ মানুষের সঙ্গে আমার যোগাযোগ রয়েছে।

এদিকে সোমবার মেয়র পদে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের মাওলানা মাসুম বিল্লাহ্ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এই নিয়ে মেয়র পদে ৬ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেন। এ ছাড়া সাধারণ সদস্য পদে মোট ১৮৫ জন এবং সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৩৭ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান তালুকদার জানান, সোমবার মেয়র পদে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ মাওলানা মাসুম বিল্লাহ্ মেয়র পদে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন। এ নিয়ে মেয়র পদে ৬ জন এবং সাধারণ সদস্য ১৮৫ জন এবং নারী সদস্য পদে ৩৭ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। আগামী ২৪ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। প্রার্থিতা যাচাই-বাছাই আগামী ২৬-২৭ নভেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ৪ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ৫ ডিসেম্বর এবং নির্বাচনের ভোটগ্রহণ আগামী ২২ ডিসেম্বর। ইতোমধ্যে নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচন নিয়ে সেলিনা হায়াৎ আইভী, নারায়ণগঞ্জ সদরের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেনসহ মোট ৫ জনকে নিয়ে সোমবার সন্ধ্যায় বৈঠক ডেকেছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। কিন্তু সেই বৈঠকে যোগ দেননি শামীম ওসমান ও আনোয়ার হোসেন। মূলত নাসিক নির্বাচেনে আইভীর পক্ষে কাজ করতেই শামীম ওসমান ও আনোয়ার হোসেনকে ডাকা হয়েছিল।

বৈঠকে না যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে শামীম ওসমান বলেন, আমি ধানমন্ডি কার্যালয়ে যাচ্ছি না। দলের সাধারণ সম্পাদকের ডাকা বৈঠকে কেন যাচ্ছেন না? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে থাকবেন কিনা এ বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত নেননি বলে জানান তিনি।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন টেলিফোনে বলেন, আমি ব্যক্তিগত কাজে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের বাইরে আছি। আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে যাওয়ার কথা থাকলেও সেখানে আজ যেতে পারছি না। কাল (আজ) প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে উপস্থিত থাকার চেষ্টা করব।

জেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল কাদির জানান, বিগত দিনে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে নির্বাচন করেছি। এবারও আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে দলের প্রার্থীকে বিজয়ী করার জন্য কাজ করব।
মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা জানান, দলীয় সভানেত্রী যাকে মনোনয়ন দিয়েছেন, আমরা তার পক্ষে কাজ করব। তাকে বিজয়ী করার জন্য যা যা করা দরকার, করব।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই জানান, আওয়ামী লীগ বৃহৎ একটি দল। এই দলে মান-অভিমান থাকতেই পারে। যেহেতু আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিয়েছেন, তার সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সবাই মাঠে নেমে এক সঙ্গে কাজ করে আমাদের নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে বিজয়ী করবেন।

জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আবু জাহের জানান, এখনো মেয়র পদে দলীয় প্রার্থী দেওয়ার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। বিগত দিনে নারায়গঞ্জ-৫ (শহর-বন্দর) আসনের উপনির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে সম্মান দেখিয়ে আওয়ামী লীগ কোনো প্রার্থী দেয়নি। তাই এবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সম্মান দেখিয়ে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রার্থী দেওয়া নাও হতে পারে।