দীর্ঘ দিনের প্রত্যাশা অবশেষে পূরণ হতে চলেছে প্রাথমিক শিক্ষকদের!

সময়ের কণ্ঠস্বর – অবশেষে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের দীর্ঘ দিনের প্রত্যাশা পূরণ হতে চলেছে। সরকারের দেয়া প্রত্যাশার প্রায় দুই বছর পর ৪৮ হাজার প্রধান শিক্ষকের বেতন স্কেল নিয়ে সৃষ্ট জটিলতার নিরসন হচ্ছে। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অর্থ মন্ত্রণালয় সহকারী সচিব শামীম আহসান স্বাক্ষরিত পত্রে বলা হয়েছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদটি যেহেতু ২য় শ্রেণির বিধায় অর্থ বিভাগ কর্তৃক গত ২৭ নভেম্বর ২০১৪ সালের পত্রটি সংশোধন/পরিবর্তন করে নন গেজেটেড হিসাবে বেতন নির্ধারণের কোনো সুযোগ নেই।

primary-teacher-somoyerkonthosor

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির আহ্বায়ক রিয়াজ পারভেজ বলেন, ২০১৪ সালের ৯ মার্চ জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রাথমিক শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির গেজেটেড মর্যাদা দেয়ার ঘোষণা দেন। সে অনুযায়ী অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের প্রয়োজনীয় অনুমোদন ও পরামার্শ নিয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রধান শিক্ষকদের বেতন স্কেল ৬ হাজার ৪০০ টাকায় (সপ্তম পে-স্কেলের হিসেবে) উন্নীত করে। কিন্তু এটি দ্বিতীয় শ্রেণি নন-গেজেটেড কর্মকর্তার বেতন গ্রেড। মন্ত্রণালয়ের এমন পদক্ষেপে নানা জটিলতা তৈরি হয়। অবশেষে তার একটা সমাধান হলো।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির খুলনা বিভাগীয় আহ্বায়ক স্বরুপ দাস বলেন, ‘আমাদের প্রধান দাবি ছিল প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তার মর্যাদা। অবশেষে আমাদের দাবি পূরণ হবার দরুন প্রধান শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে সরকারকে ধন্যবাদ জানাই।