নোয়াখালীতে প্রধান শিক্ষকের বিকৃত লালসার শিকার হলো নবম শ্রেণীর ছাত্র, জেলা জুড়ে নিন্দার ঝড়

৮:০৬ অপরাহ্ণ | সোমবার, জানুয়ারি ৯, ২০১৭ অপরাধ, চট্টগ্রাম, দেশের খবর

sd


মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীতে প্রধান শিক্ষকের বিকৃতলালসার শিকার হলো নবম শ্রেণীর ছাত্র, জেলা জুড়ে নিন্দার ঝড় বইছে। ঘটনাটি নিয়ে পুরো জেলা জুড়ে চলছে আলোচনা ও সমলোচনা। পূর্বের প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী জানা যায়, এর আগে ঐ শিক্ষক পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র দেওয়ার লোভ দেখিয়ে আরো তিন ছাত্রকে বলৎকার করে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বেগমগঞ্জের হাসানহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের বর্তমান প্রধান শিক্ষক নোয়াখালী সুধারাম থানার হাসানপুর গ্রামের ইদ্রিস আমিন বাড়ীর মৃত ছেরাজল হকের পুত্র মোশাররফ হোসেন (৪৫) গত ০২ ডিসেম্বর ২০১৬ইং দুপুর ১২টায় উক্ত বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র বেগমগঞ্জ থানার জয়কৃষ্ণপুর গ্রামের প্রবাসী সাইফুল ইসলামের পুত্র আবিদুল ইসলাম কে প্রশ্নপত্র দেওয়ার লোভ দেখিয়ে বলৎকার করে। এরপর ১২ ডিসেম্বর ২০১৬ইং বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় আবিদুল ইসলাম কে পরীক্ষায় ভালো নাম্বার দিবে বলিয়া আবার আবিদুল ইসলামকে ২য় বারের মত বলৎকার করে অর্থ্যাৎ অস্বাভাবিক যৌন সংগম করে।

পরে বিষয়টি ভিকটিমের মা হাছিনা আক্তারকে জানালে তিনি বিজ্ঞ বিচারিক ম্যাজিষ্ট্রেট ৩নং আমলী আদালত, নোয়াখালীতে একটি পিটিশাল মামলা করেন মামলা নং- ১৪/২০১৭ দায়ের করেন। এর আগে ০৮এপ্রিল ২০১৫ইং  তারিখে অবসর প্রাপ্ত সার্জেন হুমায়ন কবিরের ছেলে অত্র বিদ্যালয়ের ছাত্র পাপ্পু ও তার ভাতীজাকে একই কৌশলে বলৎকরের চেষ্টা করে এতে বিষয়টি নিয়ে এলাকায় ও ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয় বড় অংকের অর্থের বিনিময়ে ঘটনাটি ধামাচাপা পড়ে যায়। এ নিয়ে তার বিরুদ্ধে রয়েছে ৪টি অভিযোগ।

ঘটনাটি নিয়ে পুরো জেলায় টপ অব দ্যা টাউনে পরিনত হয়েছে। এলাকাবাসী ও ছাত্র-ছাত্রীদের দাবী ঐ শিক্ষককে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শান্তি দেওয়া হোক। সেই সাথে বিদ্যালয় থেকে চাকুরীচূত করার দাবী করেন।