মায়ের দুর্দশা দেখে লজ্জা, আর সেই কষ্টের ভার সইতে না পেরে শেষ পর্যন্ত আত্মহত্যাই করলেন ছেলে

৮:৪৫ অপরাহ্ণ | রবিবার, জানুয়ারি ২৯, ২০১৭ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- মা। পৃথিবীর সবচেয়ে আপনজন। সেই মায়ের দুঃখ দূর করতে যেকোনো সন্তান সব ত্যাগ স্বীকার করতে পারে। কিন্তু ওই মা যখন পাগল হন, মায়ের দুর্দশা দেখে লজ্জা, কষ্টের ভার সবাই সইতে পারে না। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায়।

মানসিক ভারসাম্যহীন মায়ের দুর্দশায় সইতে না পেরে তার প্রবাস ফেরত ছেলে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। ছেলের নাম আতিকুর রহমান চৌধুরী। তিনি উপজেলার মনিয়ন্দ ইউনিয়নের মাঝিগাছা গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী মহালম চৌধুরীর একমাত্র ছেলে।

bdp_fasiরোববার দুপুরে তার লাশ ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনের কাছে তুলে দেন আখাউড়া থানা পুলিশ।

নিহতের চাচা শাহআলম চৌধুরী জানান, আতিকুর রহমান চৌধুরী ও তার বাবা মহালম চৌধুরী সৌদি প্রবাসী। সম্প্রতি আতিকুর রহমানের মা মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন। এ খবর পেয়ে মায়ের চিকিৎসার জন্য ছেলে আতিক গত এক সপ্তাহ আগে সৌদি থেকে বাড়িতে আসেন। তাকে বিভিন্ন জায়গায় চিকিৎসা করান। কিন্তু তার কোনো উন্নতি হয়নি।

উন্মাদ মা উলঙ্গ হয়ে গ্রামে ঘুরাঘুরি করতে থাকেন। শনিবার দুপুরে উলঙ্গ হয়ে তার মা ঘর থেকে বেরিয়ে যায়। অনেক চেষ্টা করেও আতিক তার মাকে ঘরে আটকাতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত লজ্জা ও দুঃখে শনিবার বিকালে আতিক নিজ বসতঘরে ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

আখাউড়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে।

Loading...