কালকিনিতে স্ত্রীর সঙ্গে পুলিশ স্বামীর প্রতারনা

এইচ এম মিলন, কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধিঃ

ক্রয়কৃত জমি থেকে বঞ্চিত করার জন্য মাদারীপুরের কালকিনিতে রানী বেগম-(৩০) নামের এক স্ত্রীর সঙ্গে আনোয়ার হোসেন নামের এক পুলিশ স্বামীর বিরুদ্ধে প্রতারনার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই পুলিশ স্বামীর বিরুদ্ধে কোর্টে একটি প্রতারন মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে প্রতারনার স্বীকার হয়ে রানী বেগম তার স্বামীর বিচারের দাবিতে মানুষের দ্বারে-দ্বারে ধর্না দিচ্ছেন। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মামলা ও ভুক্তভোগীর পরিবার সুত্রে জানাগেছে, পৌর এলাকার কাশিপুর গ্রামের সাহাবুদ্দিন বেপারীর মেয়ে রানী বেগমের সাথে মাদারীপুরের ব্রাক্ষন্দী গ্রামের ছাদেক আলী বেপারীর ছেলে পুলিশ সদস্য আনোয়ার হোসেনের পারিবারিক ভাবে ২০০২ইং সালে বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের ঘড়ে একটি ছেলে ও একটি মেয়ে সন্তান জন্মগ্রহন করে। এবং স্ত্রী রানী বেগম শশুর বাড়িতে ঘড় উত্তোলন করার জন্য ১৩ শতাংশ জমি ক্রয় করেন। এরপর ২০১০ইং সালে স্বামী আনোয়ার হোসেন প্রথম স্ত্রীকে না জানিয়ে গোপনে দ্বিতীয় বিয়ে করেন ফাহিমা আক্তার পুতুল নামের এক যুবতীকে। দ্বিতীয় বিয়ের পর আনোয়ার হোসেন বিভিন্ন সময় প্রথম স্ত্রী রানী বেগমকে যৌতুকের জন্য একের পর এক শারীরিক ও মানুষিক ভাবে নির্যাতন করে আসছে।

kalkini-police

এ নির্যাতন সইতে না পেরে রানী বেগম বর্তমানে বাবার বাড়ি ছেলে সন্তানদের নিয়ে অবস্থান করছেন। এ সুযোগে আনোয়ার হোসেন প্রথম স্ত্রী রানী বেগমের ক্রয়কৃত ১৪৯নং কুলপদ্দি মৌজার ২৬০৯ দাগের ১৩ শতাংশ জমি ভুয়া স্ত্রী সাজিয়ে অন্য একজনকে দাতা দেখিয়ে তার পুত্র সাজিত হোসেনের নামে হেবা ঘোষনাপত্র রেজ্রিঃ করে নিয়ে যায়। এ প্রতারনার ঘটনায় রানী বেগম বাদী হয়ে স্বামী আনোয়ার হোসেনকে আসামী করে মাদারীপুর কোর্টে মামলা দায়ের করেন।

রানী বেগম কান্না জরিত কণ্ঠে বলেন, আমি কিছু চাইনা । আমি শুধু এ প্রতারনার ঘটনায় আমার প্রতারক স্বামীর বিচার চাই।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত স্বামী আনোয়ার হোসেনের সাথে এ বিষয় মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, রানীর অভিযোগ সম্পুর্ন মিথ্যা।

কালকিনিতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনসহ বিভিন্ন অঙ্গ- সংগঠনের উদ্যোগে রাত ১২টা ১মিনিটে কলেজ চত্বরের শহীদ বেদীতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন ও ভোর ৭টায় প্রভাতফেরীর মধ্যে দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় দিনটি পালন করা হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান তৌফিকুজ্জামান শাহিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ শাম্মী আক্তার, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি তাহমিনা সিদ্দিকী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মাহমুদুল হাসান দোদুল, পৌর আ’লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট আবুল বাশার, পৌর মেয়র এনায়েত হোসেন, আ’লীগ নেতা সোহেল রানা মিঠু, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ওবাইদুর রহমান সোহেল, ওসি কৃপা সিন্ধু বালা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি অহেদুজ্জামান বুলেট ও সাধারন সম্পাদক মীর সুজন প্রমুখ।