ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনারের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স লঙ্ঘনের অভিযোগ

আব্দুল মান্নান পল্টন, ময়মনসিংহ ব্যুরো-  ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার জিএম সালেহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে একুশের প্রথম প্রহরে ভাষাশহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদনের ক্ষেত্রে ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছেন ময়মনসিংহের জেলা আইনজীবী সমিতি।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শ্রী বাঁধন কুমার গোস্বামী বলেন গত তিন মাস পুর্বে প্রজাতন্ত্রের গুরুত্বপূর্ণ পদগুলোর মর্যাদাক্রমে (ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স) বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোট।

unnamedরায়ে বলা হয় প্রজাতন্ত্রের সর্বোচ্চ কর্মকর্তা হিসেবে থাকবে জেলা জজদের অবস্থান। অর্থাৎ সচিবদের সঙ্গে একই স্তরে। বিভিন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াও এ খবর গুরুত্বের সাথে প্রকাশ করে। কিন্তু জেলা জজ ড.আমির উদ্দিন উপস্থিত থাকা সত্ত্বেও ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার জিএম সালেহ উদ্দিন ২০ ফেব্রুয়ারী সোমবার রাত ১২টা ১মিনিটে নগরির টাউনহল শহীদ মিনারে সবার আগেই পুষ্পস্তবক অর্পন করে ফেলেন।

অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদায় থাকা বিভাগীয় কমিশনারের এ কাজটি করা উচিত হয়নি, বলে মন্তব্যে করেন বাঁধন কুমার গোস্বামী।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শ্রী বাঁধন কুমার গোস্বামী আরও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন জেলা দায়রা জজকে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করতে দেওয়া হয়েছে বিভাগীয় কমিশনারের আরও কয়েকজনের পরে।

উল্লেখ্য, জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ ও ধর্মমন্ত্রী প্রিন্সিপাল মতিউর রহমান এ একুশের প্রথম প্রহরের অনুষ্ঠানে ছিলেননা। এ বিষয়ে ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জিএম সালেহ উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন আইনজীবী সমিতির নেতাদের ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স দেখাতে বলেন।

একই শহীদ মিনারে জেলা পুলিশের ব্যাপক নিরাপত্তা বলয়ে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক, জেলা পরিষদ, পুলিশ সুুপার, পৌর পরিষদ, জেলা আওয়ামীলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, জেলা ও মহানগর যুবলীগ, তাঁতী লীগ, জেলা জাতীয় পাটি, বিএনপিও অঙ্গ সংগঠন, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনসহ নানা পেশাজিবী হাজার হাজার মানুষ।