গাজীপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

পলাশ মল্লিক, স্টাফ রিপোর্টার: গাজীপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে আব্দুস সাত্তার (৩৫) নামে এক স্বামীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

karadondo

আজ বুধবার দুপুরে গাজীপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এ কে এম এনামুল হক এ রায় প্রদান করেন। রায়ে একই সাথে আসামিকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। দণ্ড প্রাপ্ত আব্দুস সাত্তার ময়নসিংহের ফুলবাড়িয়া থানার এনায়েতপুর গ্রামের মোঃ ইব্রাহিমের ছেলে।

গাজীপুর জজ কোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট হারিছ উদ্দিন আহম্মেদ জানান, ময়নসিংহের ফুলবাড়িয়া থানার এনায়েতপুর এলাকার মৃত সাহেদ আলী মণ্ডলের মেয়ে হাসিনা খাতুনকে (৩২) পনেরো বছর আগে বিয়ে করেন আব্দুস সাত্তার। পরে তারা গার্মেন্টসে চাকরির সুবাদে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের বাড়িয়ালী এলাকার শাহজাহান ড্রাইভারের ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। গত বছরের ৫ মার্চ সকালে হাসিনা গার্মেন্টসের উদ্দেশে বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন। পরদিন সকালে পার্শ্ববর্তী টেকনগপাড়া এলাকার পতিত জমি থেকে গলায় ওড়না পেচানো অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে নিহতের ভাই আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ তদন্তে নিহতের স্বামী আব্দুস সাত্তার জড়িত থাকার প্রমাণ পেয়ে তাকে গ্রেফতার করে। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি স্ত্রী হত্যার কথা স্বীকার করেন এবং আদালতে স্বীকারোক্তি দেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওই বছরের ৩০ মার্চ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলায় আটজন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ ও শুনানি শেষে আজ বুধবার বিচারক ওই রায় প্রদান করেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন পিপি এড. হারিছ উদ্দিন আহম্মেদ এবং আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন এড. আশরাফুল ইসলাম রতন।