মনপুরায় পুলিশের সাথে ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ-২৯

এস আই মুকুল, ভোলা প্রতিনিধি: ভোলার মনপুরায় পুলিশের সাথে ব্যবসায়ীদের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশ এবং পথচারীসহ ৪০ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে ২৯ জন গুলিবিদ্ধকে মনপুরা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ বুধবার (২২শে ফেব্রুয়ারী) সকাল ৯টায় উপজেলার হাজীর হাট বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

monpura

আহত ব্যবসায়ী ও পথচারীরা হলেন, খোরশেদ আলম কুট্রি (৫০), শোয়েব (৩০), ইব্রাহীম (২৮), নাহিদ (১৫), কবির (২৪), হারুন (৩৫), আরিফ (৩০), তরিকুল (৪০), নুরুদ্দিন (২৪), শরিফ (২৪), আবু তাহের (৩৫), ইব্রাহীম (২৮), আঃ রহমান (৩৫), হারুন (২৪), রাকিব (১৮), হোসেন (২৫), মিজান (৩৫), জামাল (৩০), হেলাল (১৬), মালেক (৩০), মোসলেহ উদ্দিন (২০), লিটন ফরাজী (৩৫), নুরুল ইসলাম (৩০), নুরু (৩৬)।

এছাড়াও আহত পুলিশরা হলেন, ওসি শাহীন খাঁন, এএসআই প্রদীপ, কনস্টেবল জুনায়েদ, আরিফ বিল্লাহ, জসিম, আঃ হালিম এবং নাঈম।

জানা গেছে, উপজেলার হাজীর হাট বাজারের ফল ব্যবসায়ী হারুনের সাথে মনপুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীন খাঁনের হকার উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে বাক-বিতন্ডা হয়। পরে এক পর্যায়ে ওসি ক্ষীপ্ত হয়ে হারুন, হাসান ও আঃ রহমানের ফলের দোকানে গিয়ে ব্যবসায়ীদের মারধর করে এবং দোকান বন্ধ করে দেয়। বিষয়টি জানতে পেরে বাজার ব্যবসায়ীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে ওসির কর্মকান্ডের প্রতিবাদে হাজীর হাট বাজারের সকল দোকান পাট বন্ধ করে দিয়ে প্রতিবাদ জানায়। এতে ওসি আবারও ক্ষীপ্ত হয়ে ব্যবসায়ীদের উপর পুলিশ এলোপাথাড়ি গুলি ছুঁড়ে। বর্তমানে স্থানীয় বাসিন্দা ও সাধারন ব্যবসায়ী মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। যেকোন সময় পুনরায় সংঘর্ষের সম্ভাবনা রয়েছে।

এ ব্যাপারে হাজীর হাট বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সাধারন সম্পাদক মোঃ মহিউদ্দিন সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, ওসির অতিরঞ্জিত ব্যবহারের কারনে এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটেছে। তবে সৃষ্ট ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের ক্ষতিপূরন এবং সুষ্ঠু তদন্তের দাবী করছি।