তুরস্কের জরুরি ভিত্তিতে ‘এস-৪০০’ প্রয়োজন: প্রতিরক্ষামন্ত্রী

4bk446c2ad7f3d6fj4_800C450


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

তুরস্ক বলেছে, দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী ব্যবস্থা এস-৪০০ কেনার জন্য দেশটির অচিরেই রাশিয়ার সঙ্গে একটি চুক্তি করতে যাচ্ছে।

তুর্কি প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফিকরি ইশিক দেশটির সাবাহ পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তুরস্ক নিজস্ব প্রযুক্তিতে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তৈরির কাজে হাত দিয়েছে। কিন্তু এটি তৈরিতে যথেষ্ট সময় প্রয়োজন। এদিকে তুরস্কের জরুরি ভিত্তিতে এই ব্যবস্থা দরকার। তাই রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ কেনার বিষয়ে আলোচনা শুরু করেছে আঙ্কারা।

বর্তমানে ন্যাটো জোটের পক্ষ থেকে তুরস্ককে ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সরবরাহ করা হচ্ছে জানিয়ে ইশিক বলেন, তার দেশ প্রতিরক্ষা খাতে পুরোপুরি স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে চায়। এস-৪০০ কেনার ব্যাপারে রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনায় ‘উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি’ হয়েছে বলে জানান তুর্কি প্রতিরক্ষামন্ত্রী। তবে তিনি এও বলেন যে, আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই এ ব্যাপারে চুক্তি হয়ে যাচ্ছে এমনটি ভাবাও ঠিক হবে না।

ওদিকে রাশিয়ার সংশ্লিষ্ট বিভাগের প্রধান নির্বাহী সের্গেই চেমেঝোভ বলেছেন, “তুরস্ক এস-৪০০ ব্যবস্থা কিনতে আগ্রহী। এ বিষয়ে আলোচনা চলছে এবং এখানে প্রধান ইস্যু হচ্ছে অর্থ।”

রাশিয়ার সঙ্গে এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কেনার আলোচনায় ‘ইতিবাচক অগ্রগতি’ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু।

এর আগে গত বছর ক্রেমলিন জানিয়েছিল, তুরস্ক চাইলে দেশটির কাছে বিভিন্ন ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা হস্তান্তর করতে রাজি আছে মস্কো।