সরিষাবাড়ী উপজেলা হাসপাতালে ডায়রিয়ার ৪০ রোগী ভর্তি

আবদুল লতিফ লায়ন, জামালপুর প্রতিনিধি:

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। গত ৩ দিনে এ পর্যন্ত শিশুসহ ৪০ জন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, সরিষাবাড়ীতে এক সপ্তাহ ধরে বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করায় উপজেলার সাতপোয়া, পিংনা, আওনা, ডোয়াইল, পোগলদিঘা, কামরাবাদ, মহাদান, ভাটারা ও পৌর শহরের বিভিন্ন এলাকায় ডায়রিয়াসহ নানাবিদ রোগ দেখা দিয়েছে। হাসপাতালে ডায়রিয়া আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে শিশুদের সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। এ অবস্থায় খাওয়ার স্যালাইনের সংকট দেখা দিয়েছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. মমতাজ উদ্দিন জানান, ডায়রিয়ায় আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলছে। সঙ্গে রয়েছে নিউমোনিয়া। একটি শিশুর ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া একসঙ্গে হলে চিকিৎসা দেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে।

sorisabari-upojela-hospital

ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে ডিগ্রীপাচবাড়ি গ্রামের স্বাধীন (১), কৃষ্টপুরের মানিজান বেগম (৪০), বিলবালিয়া গ্রামের সাত মাস বয়সী সুমাইয়া ও পরশ এবং মাগুরিয়া পাড়ার হিমেল (২)।

বিলবাড়িয়ার পরশের বাবা রুবেল মিয়া জানান, ‘দুই দিন ধরে শিশুকে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছি। বাইরে থেকে স্যালাইন কিনে আনতে হচ্ছে।’
মাগুরিয়াপাড়া গ্রামের হিমেলের বাবা শেখ ফরিদ জানান, ‘আক্রান্ত শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করেছি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. ফজলুল হক জানান, বৈরী আবহাওয়ায় ধুলাবালু, মশা-মাছির কারণে এ সময় ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে।

শিশুদের ডায়রিয়া থেকে বাঁচার পরামর্শ দিয়ে মো. ফজলুল হক আরও জানান, এ রোগ থেকে রক্ষা পেতে সতর্ক থাকতে হবে। মাটিতে ছেড়ে দেওয়া যাবে না। গরম কাপড় পরাতে হবে। ডায়রিয়ার লক্ষণ দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে আসতে হবে।