টাঙ্গাইলে বাস কোচ-মিনিবাস শ্রমিকদের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

ttr


অন্তু দাস হৃদয়, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :

মানিকগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় শিশুক মনির ও তারেক মাসুদসহ পাঁচজন নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় বাস চালক জমির হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেয়ার ঘটনায় টাঙ্গাইলে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

(২৩ ফেব্রুয়ারি) বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় জেলা বাস কোচ মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়ন টাঙ্গাইল জেলা শাখার উদ্যোগে ও দূর্ঘটনা জনিত পরিবহন আইনে সাজা ধার্যের দাবীতে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

সংগঠণের নতুন বাস টার্মিনাল প্রধান কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিল শেষে টাঙ্গাইল শহীদ মিনার চত্বরে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়।

এ সময় সংগঠনের সভাপতি খন্দকার আহসান হক পিন্টুর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, টাঙ্গাইল জেলা বাস কোচ মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মীর লুৎফর রহমান লালজু প্রমুখ।

এ সময় সংগঠণের কার্যকরি সভাপতি গোলাম মওলা, সহ-সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন, সেলিম মিয়া, দপ্তর সম্পাদক দিলীপ কুমার দাস, প্রচার সম্পাদক সেলিমসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তারা দাবী করেন, পরিবহন দূর্ঘটনার শিকার জমির ড্রাইভারের বিচার কার্যক্রম পরিবহন আইনে পরিচালনা না করে দেশের প্রচলিত আইনে সাজা প্রদান করা হয়েছে। অনতিবিলম্বে এ চালকের ধার্যকৃত সাজা ¯’গিত করে দূর্ঘটনা জনিত পরিবহন আইনে সাজা ধার্যের দাবী জানান বক্তারা।

পরিবহন শ্রমিকদের এই নায্য দাবী মেনে নেয়া না হলে দেশ জুড়ে পরিবহন ধর্মঘট ডাকাসহ বৃহৎ কর্মসূচি দেয়ার হুশিয়ারী দেন শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, বিগত ২০১১ সালের ১৩ আগস্ট মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার জোকা এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে বাসের সঙ্গে তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরকে বহনকারী মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে ঘটনা¯’লেই নিহত হন তারা।

এ সময় মাইক্রোবাসের চালক মুস্তাফিজ, তারেক মাসুদের প্রোডাকশন ম্যানেজার ওয়াসিম ও কর্মী জামালও ঘটনা¯’লে মারা যান।