নিউইয়র্কে বাড়িওয়ালার হাতে শিশু সন্তানের সামনেই নৃশংস কায়দায় খুন বাংলাদেশি

প্রবাসের সংবাদ ডেস্ক-

নিউইয়র্কের ব্রুঙ্কসে বাড়িওয়ালার ছুরিকাঘাতে জাকির খান (৪৪) নামে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত এক রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ও কমিউনিটি নেতা নিহত হয়েছেন। বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ব্রঙ্কসের লোগান এভিনিউ থ্রোগস নেক সেকশনের নিজ বাসভবনের সামনে তাকে হত্যা করা হয়।
নিহতের পরিবার ও নিউইয়র্ক পুলিশ বিভাগ এ তথ্য জানিয়েছে।

নিহত জাকির খানের গ্রামের বাড়ি সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ থানার পাঠানটিলা গ্রামে। সে নিউ ইয়র্ক প্রবাসীদের মাঝে অত্যন্ত পরিচিত মুখ ও আবাসন ব্যবসায়ী। পুলিশ বাড়িওয়ালাকে আটক করেছে বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, ১০০১ লগান এভিনিউয়ের একটি বাসায় বিগত নয় মাস ধরেই বাস করছিলেন জাকির খান। বাড়িওয়ালার সঙ্গে তার চুক্তি ছিল বাড়িটি কিনে নেয়ার। এ নিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় বাড়িওয়ালার সঙ্গে জাকির খানের তর্ক হয়। এক পর্যায়ে ১২ বছর বয়সী সন্তানের সামনেই জাকির খানকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান ওই বাড়ির মালিক। পরে তাকে স্থানীয় জ্যাকোবি মেডিকেল সেন্টারে নিলে চিকিৎসকরা জাকির খানকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৫১ বছর বয়সী বাড়িওয়ালাকে আটক করা হয়েছে।

নিহত জাকির নিউইয়র্কে পড়ালেখা করতে গিয়ে ১৯৯২ সালে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস শুরু করেন তিনি। এরপর রিয়েল এস্টেট ব্যবসায় মনোনিবেশ করেন। দ্রুতই তিনি ব্রঙ্কসে শীর্ষস্থানীয় রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী হিসেবে কমিউনিটিতে পরিচিত লাভ করেন। জাকিরের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে শত শত প্রবাসী বাংলাদেশি জ্যাকবি হাসপাতালে ভিড় করেন। কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে আসে।

newyork-bangadeshi-murder

জাকিরের স্ত্রী ও তিন সন্তান রয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য জাকিরের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তার মরদেহ বাংলাদেশে পাঠানো হবে, নাকি নিউইয়র্কে দাফন হবে—এ বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

Save