সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলায় ৯০০ বেসামরিক নাগরিক নিহত

4bhj930d0663491fmd_800C450


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

সিরিয়ায় উগ্র তাকফিরি জঙ্গি গোষ্ঠী দায়েশের বিরুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনীর বিমান হামলায় এ পর্যন্ত প্রায় ৯০০ বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। প্রায় আড়াই বছর আগে ওই বিমান হামলা শুরু হয়।

ব্রিটেনভিত্তিক কথিত মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় ৩৩৯ নারী ও শিশুসহ ৮৭৬ জন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। সিরিয়ার রাক্কা, হাসাকাহ, আলেপ্পো, ইদলিব ও দেইর আয-যোর প্রদেশে এসব হামলা চালানো হয়েছে।

দজলা নদীর তীরে অবস্থিত রাক্কা শহরটি ২০১৩ সালের মার্চ মাসে দখল করে নেয় দায়েশ। এরপর শহরটিকে তারা নিজেদের রাজধানী ঘোষণা করে এবং সিরিয়ার বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক ধ্বংসলীলা ও তাণ্ডব চালায়।

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে ক্ষমতাচ্যুত করতে আমেরিকার প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগিতায় দায়েশকে লেলিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু এই গোষ্ঠী একের পর এক পাশবিক গণহত্যা চালিয়ে সেগুলোর ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার পর আমেরিকার টনক নড়ে।

চক্ষুলজ্জায় পড়ে ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে সিরিয়ার অভ্যন্তরে দায়েশের বিরুদ্ধে কথিত যুদ্ধ শুরু করে মার্কিন নেতৃত্বাধীন আন্তর্জাতিক জোট। এ কাজে জাতিসংঘ কিংবা সিরিয়া সরকারের অনুমোদন নেয়ার প্রয়োজন মনে করেনি আমেরিকা।

মার্কিন নেতৃত্বাধীন এই কথিত জোট গত প্রায় আড়াই বছর ধরে হামলা চালিয়ে দায়েশকে নির্মূল বা দুর্বল করতে পারেনি। উল্টো তাদের হামলায় যে ব্যাপক হারে নিরীহ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে সে খবরই প্রকাশ পেল।