ন্যামের দেহে ভয়ঙ্কর রাসায়নিকের অস্তিত্ব

news_picture_43176_kim1


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের সৎ ভাই কিম জং ন্যামকে ভিএক্স নামে এক ধরনের রাসায়নিক পদার্থ প্রয়োগের মাধ্যমে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে মালয়েশিয়া। শুক্রবার সকালে মালয়েশিয়ার পুলিশ এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ন্যামের চোখ ও মুখমন্ডল থেকে ভিএক্স নার্ভ এজেন্ট নামের রাসায়নিক পাওয়া গেছে। দেশটির রাসায়নিক বিভাগ ন্যামের মরদেহ পরীক্ষা করে এ উপাদানের অস্তিত্ত্ব পেয়েছে। গত সপ্তাহে কুয়ালালামপুরের ব্যস্ত বিমানবন্দরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

জাতিসংঘ যেসব রাসায়নিককে ব্যাপক বিধ্বংসী হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে তার মধ্যে ভিএক্স নার্ভ এজেন্ট অন্যতম।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন বিভাগের মতে, স্নায়ুকে বিকল করতে যেসব রাসায়নিক রয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী হচ্ছে ভিএক্স নার্ভ এজেন্ট। দেহের চামড়ার সংস্পর্শে আসার পর দ্রুত ধুয়ে না ফেললে এটি প্রাণঘাতী হয়ে উঠতে পারে। কেবল রাসায়নিক যুদ্ধেই এটি ব্যবহৃত হয়।

সংস্থাটি আরো জানিয়েছে, বড় মাত্রায় ভিএক্সের প্রয়োগে ব্যক্তি জ্ঞান হারাতে পারে, পক্ষাঘাতগ্রস্ত অথবা হৃদরোগে আক্রান্ত হতে পারে।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ম্যাকাও যাওয়ার উদ্দেশে কুয়ালালামপুর থেকে বিমানে উঠার সময় দুই নারী ন্যামের মুখে বিষাক্ত এ রাসায়নিক পদার্থ ছুড়ে মারলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ উত্তর কোরিয়ার এক পুরুষসহ ভিয়েতনাম ও ইন্দেনেশিয়ার দুই নারীকে গত সপ্তাহে আটক করেছে। কুয়ালালামপুরস্থ উত্তর কোরিয়ার দূতাবাসের এক কর্মকর্তাসহ আরো সাতজনকে খুঁজছে মালয়েশিয়ার পুলিশ।