সুসময়ে ও দুঃসময়ে বাংলাদেশ-ভারত পাশাপাশি থাকবে: ভারতীয় হাইকমিশনার

সিলেট প্রতিনিধি – সিলেট নগরীর শিক্ষা ও পরিবেশ উন্নয়নে তিনটি প্রকল্প বাস্তবায়নে সিটি করপোরেশন, অর্থ মন্ত্রণালয় ও ভারতীয় হাইকমিশনের মধ্যে ত্রিপাক্ষিক একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে সিলেট সার্কিট হাউসে প্রায় ২৫ কোটি টাকার এই চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের উপস্থিতিতে চুক্তিতে বাংলাদেশি নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রীংলা, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শাহ মো. আমিনুল হক ও সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন।

এই চুক্তির আওতায় সিলেট নগরীতে ৫তলা বিশিষ্ট একটি বিদ্যালয়, পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের জন্য ৬তলা বিশিষ্ট কলোনি ও ধোপাদিঘীর পরিবেশ উন্নয়ন করা হবে।

sringla

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রীংলা বলেন, শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে চমৎকার সম্পর্ক বিরাজ করছে। ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উৎসাহে ভারতীয় সৈন্যরা ও বাংলাদেশি মুক্তিযোদ্ধারা একসাথে যুদ্ধ করেছিল এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য একসাথে রক্ত দিয়েছিল। এটা ছিল সকল ভারতীয়দের জন্য গর্বের বিষয়। আজ বাংলাদেশ দৃঢ়ভাবে চরমপন্থাকে বর্জন করেছে এবং প্রগতিশীল সমাজ হিসেবে সফলতা অর্জন করেছে। আমরা শান্তি ও সমৃদ্ধিতে ভালো প্রতিবেশী হিসেবে বাস করবো এবং সুসময়ে ও দুঃসময়ে একে অন্যের পাশে থাকবো।

চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠান শেষে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, আবাসিক গ্যাসের মূল্য অনেক কম ছিল, তাই এবার বৃদ্ধি করা হয়েছে।