ডেটল-স্যাভলনের কাজ করে মাকড়সার জাল!

news_picture_43219_garden-slider-2


চিত্র বিচিত্র ডেস্কঃ

ঘরের ভেতর বা বারান্দায় জমে থাকা মাকড়সার জাল পরিষ্কার করে ফেলা হয়। মাকড়সার জাল নিয়ে গৃহস্থের বিড়ম্বনার কথা কে না জানেন? কিন্তু আপনি কি জানেন, আপনার হাতের কাছে ফার্স্ট এইড কিট না থাকলে এই মাকড়সার জালই হতে পারে অব্যর্থ টোটকা?

বিশ্বাস হচ্ছে না? আজ থেকে নয়, বহুদিন ধরেই ক্ষত সারাতে মাকড়সার জাল ব্যবহার করা হচ্ছে। একটি স্বাস্থ্য ওয়েবসাইটের দাবি, গ্রিক এবং রোমানদের যুদ্ধের ইতিহাসেও নাকি মাকড়সার জাল ব্যবহারের উল্লেখ পাওয়া যায়৷

যুদ্ধের সময় সৈন্যদের চোট-আঘাত লাগলে সেই চোটের ওপর মাকড়সার জাল লাগিয়ে বেঁধে দেয়া হতো। এর ফলে সৈন্যদের ক্ষত খুব তাড়াতাড়ি শুকিয়ে যেত৷

কিন্তু কীভাবে কাজ করে এই মাকড়সার জাল? বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, মাকড়সার জালে প্রচুর পরিমাণে ‘ভিটামিন কে’ রয়েছে, যা রক্তকে দ্রুত জমাট বাঁধতে সাহায্য করে৷

এছাড়া মাকড়সার জালের মধ্যে অ্যান্টিসেপটিক ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল জাতীয় উপাদানও রয়েছে৷ বিজ্ঞানীরা এ-ও জানিয়েছেন যে, ঠিকমতো মাকড়সার জাল ব্যবহার করতে পারলে ওষুধের ন্যায় কাজ করে। ডেটল-স্যাভলনের কাজ করে মাকড়সার জাল!

তবে মাথায় রাখতে হবে, এই মাকড়সার জালটি যেন নোংরা বা বিষাক্ত না হয়৷ শরীরের কোনও অংশে কেটে গেলে বা চোট পেলে সেই চোটের ওপর পরিষ্কার মাকড়সার জাল লাগিয়ে ব্যান্ডেজ বেঁধে দিলেই হল। কিছুক্ষণের মধ্যেই কমে যাবে ব্যথা।

যেকোনও মাকড়সার জালে অবশ্যই এটা সম্ভব নয়। কেউ যদি ব্ল্যাক উইডোর লালা থেকে তৈরি জালকে ক্ষতে লাগান, তাহলে বিপদ অনিবার্য। আসলে এই টোটকা অতি প্রাচীন ড্রুইড-সংহিতা থেকে প্রাপ্ত। ইউরোপের প্রাক খ্রিস্টান ড্রুইডরা ঠিক কোন মাকড়সার জাল ক্ষত-চিকিৎসায় ব্যবহার করতেন, তা সঠিক জানা যায় না।

বিজ্ঞানের উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে প্রাচীন এই পদ্ধতির ব্যবহারও বন্ধ হয়ে গেছে। পরবর্তী সময়ে কোনও চোট পেলে এই টোটকাটি ব্যবহার করে দেখতেই পারেন।