কেন হাঁটু গেড়ে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়া হয় জানেন তা?

news_picture_43361_propose1


লাইফস্টাইল ডেস্কঃ

আমাদের সংস্কৃতিতে না হলেও, পশ্চিমা সংস্কৃতিতে বিয়ের ঐতিহ্যবাহী প্রস্তাব এমন হয়- নারীর সামনে পুরুষ হাঁটু গেড়ে বসে বিয়ের প্রস্তাব করেন, এ সময় উপহার হিসেবে থাকে আংটি। কিন্তু কেন এক হাঁটু গেড়ে বসে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়া হয়?

দুর্ভাগ্যক্রমে, এই রোমান্টিক অঙ্গভঙ্গির ইতিহাস বা উৎপত্তি সম্পর্কে কেউই একমত নন। কিন্তু কয়েকটি তত্ত্ব থেকে এই ভঙ্গির বিষয়ে প্রতিশ্রুতির ধারণা পাওয়া যায়।

মধ্যযুগে, সৌজন্যতা তখনো ছিল। আধুনিক বিয়ের প্রস্তাবের ভঙ্গিকে মধ্যযুগীয় শ্রদ্ধার রীতির সংস্করণ বলা যেতে পারে। সেসময় অনেক আনুষ্ঠানিক ধর্মানুষ্ঠান এবং শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে হাঁটু গেড়ে বসার রীতি ছিল। মধ্যযুগীয় অনেক শিল্পকর্ম এবং সাহিত্যে দেখা যায়, শ্রেষ্ঠ যোদ্ধা হিসেবে পরিচিত নাইটরা শাসকের প্রতি এভাবে শ্রদ্ধা ও সম্মানের নিদর্শন প্রকাশ করতো অথবা অভিজাত নারীর সামনেও এভাবে হাঁটু গেড়ে বসে শাশ্বত বশ্যতা ও শ্রদ্ধা প্রকাশ হিসেবে ‘ভদ্র ভালোবাসা’ প্রকাশ করতো।

তবে মধ্যযুগীয় আচারঅনুষ্ঠানই শুধুমাত্র এর সম্ভ্যাব্য ব্যাখা নয়, ধর্মও এখানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে থাকতে পারে। বিভিন্ন ধর্ম যেমন ইসলাম ধর্ম এবং খ্রিস্টান ধর্মে স্রষ্টার প্রতি আনুগত্য প্রকাশ এবং অনন্ত শ্রদ্ধা প্রদর্শনের জন্য হাঁটু গেড়ে বসে প্রার্থনা রয়েছে।

তাই যখন আপনার প্রিয়জন আপনাকে সম্মুখে এক হাঁটু গেড়ে বসে আংটি দিয়ে প্রপোজ করে, সেখানে শুধু সে আপনার ‘হ্যাঁ’ বলার প্রত্যাশাটুকু করে না। এভাবে বসে সে আপনাকে আরো জানায় যে, আপনি যোগ্য সম্মানের অধিকারী, শ্রদ্ধা এবং এই ভালোবাসা অনন্তকালের।