শিবগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের মেয়ে অপহরন:মামলা তুলে নিতে বাদিকে হুমকি

tyty


মো. কামাল হোসেন, শিবগঞ্জ প্রতিনিধি:

হিন্দু সম্প্রদায়ের এক যুবতীকে অপহরণের ঘটনায় থানায় এজাহার দাখিল করায় মামলা প্রত্যাহারের জন্য বিবাদীরা বাদিকে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌর এলাকার ঠাঁকুরবাড়ি রতœপাড়া গ্রামে। এজাহার সূত্রে জানা গেছে- উপজেলার দূর্লভপুর ইউনিয়নের আট রশিয়া গ্রামের শামসুল হক মেম্বারের ছেলে কাউছার আলী (৩০) শিবগঞ্জ পৌর এলাকার ঠাঁকুরবাড়ি রত্নপাড়া গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্রী মনি প্রামাণিকের মেয়ে শ্যামলী প্রামাণিকের (১৮) নিকট প্রেম প্রস্তাব দিলে শ্যামলী প্রামাণিক প্রেম প্রত্যাখান করে এবং ঘটনাটি তার পিতাকে জানায়।

ঘটনাটি শ্যামলী প্রামাণিকের পিতা শ্রী মনি প্রামাণিক, কাউসারের পিতা শামসুল হক মেম্বারকে  জানায়। এ ঘটনার জের ধরে গত ১৪ ফেব্র“য়ারী সকাল ১০টার দিকে শ্যামলী প্রামাণিক তার নিজের হাতে তৈরী করা পোশাক গ্রাহকের নিকট বুঝিয়ে দিয়ে বাড়ি ফিরার সময় বাবুপাড়া এলাকার রাস্তা থেকে কাউসার ও তার দলবল তাকে জোরপূর্বক অপহরন করে নিয়ে যায়। শ্যামলীর পরিবার অনেক খোঁজাখুঁজি করার পর জানতে পারে যে কাউসার ও তার দলবল তার মেয়ে শ্যামলী প্রামাণিককে অপহরণ করে নিয়ে গেছে।

এব্যাপারে শ্রী মনি প্রামাণিক  বাদী হয়ে শিবগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বর ৩৭, তারিখ ১৮-০২-২০১৭। বাদী শ্রী মনি প্রামাণিক জানান, রহস্যজনকভাবে গত ১৭ ফেব্র“য়ারী পুলিশ শিবগঞ্জ থানার প্রধান ফটক থেকে আমার মেয়ে শ্যামলী প্রামাণিককে উদ্ধার করে থানা হাজতে রাখে। গত ১৯ ফেব্ররুয়ারী কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করে। গত ২০ ফেব্র“য়ারী কোর্ট আমার মেয়েকে সমাজ সেবা অধিদপ্তরের আওতাধীন সেফ হোমে রাখার নির্দেশ দিলে গত ২১ ফেব্ররুয়ারী হতে সেফ হোমে আছে।

বাদী শ্রী মনি প্রামানিক কান্নাজড়িত কণ্ঠে এ প্রতিবেদককে জানায়, আসামী কাউসার ০১৭৩৫৮৫৩০৩৯ নম্বর মুঠোফোন থেকে আমার অন্য মেয়ের ০১৭৭৬৮৩২৪২১ নম্বরে ফোন করে মামলা প্রত্যাহার করা না হলে প্রাণে মেরে ফেলা হবে বলে হুমকি দেয়। তিনি আরও জানান, ঘটনাটি আমি তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আব্দুস সালামকে জানালেও তিনি এ পর্যন্ত কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি। এমনকি আসামীরা  প্রকাশ্য ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছে না।

তিনি জানান, গত ২২ ফেব্র“য়ারী আমার মেয়ের বিয়ের তারিখ নির্ধারিত ছিল। আসামীরা গ্রেফতার না হওয়ায় বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার পরিজন নিয়ে আতঙ্কের মধ্যে বসবাস করছি। এব্যাপারে তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আব্দুস সালামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বাদীর সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আসামীদের ধরার জন্য অভিযান অব্যহত রয়েছে।