বাবামায়ের সঙ্গে অভিমানে দুই কিশোর-এক কিশোরীর আত্মহত্যা

নিউজ ডেস্ক, সময়ের কণ্ঠস্বর~  বাবামায়ের সঙ্গে অভিমানে সিরাজগঞ্জে একদিনে দুই কিশোর-কিশোরী আত্মহত্যা করেছে। একই সময়ে আরেক যুবক গলা ফাঁস দিয়েছেন। সোমবার তিনজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহতরা হলো তাড়াশ উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের পেংগুয়ারী গ্রামের মো. তফিজ উদ্দিনের মেয়ে তাজমা খাতুন (১৩), রায়গঞ্জ উপজেলার চাঁদপুর গ্রামের হাফিজুর রহমানের ছেলে ও মাধ্যমিক স্কুলছাত্র ইয়াছিন আলী (১৩) এবং সদর উপজেলার ছোনগাছা ইউনিয়নের গুপীরপাড়া গ্রামের রেজাউল করিমের ছেলে মেহেদী হাসান (২৩)।

lass

তাড়াশ উপজেলার বারুহাস ইউপি সদস্য মহসিন আলী জানান, সোমবার সকালে পরিবারের অভাব-অনটন নিয়ে তাজমার সঙ্গে তার মায়ের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে মা সমিতির ঋণের কিস্তি দিতে বাড়ি থেকে বের হন। এই ফাঁকে অভিমান করে তাজমা নিজের শোবার ঘরের ধর্নার সঙ্গে রশি দিয়ে ফাঁস দেয়।

মা বাড়ি ফিরে মেয়ের ঝুলন্ত লাশ দেখে চিৎকার করেন। পরে তাড়াশ থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে অপমৃত্যু মামলা হয়েছে বলে জানান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনজুর রহমান।

রায়গঞ্জ উপজেলার চাঁদপুর গ্রামের হাফিজুর রহমান দাবি করেন, ছেলে ইয়াছিন বেশ কিছুদিন ধরে একটি বাইসাইকেল কিনে দেওয়ার দাবি করে আসছিল। কিন্তু এখনি কিনে না দেওয়ায় রোববার সন্ধ্যায় নিজ ঘরের আঁড়ার সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে সে। দুপুরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ দিকে সিরাজগঞ্জ সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জয়দেব কুমার সরকার জানান, সোমবার দুপুরে গুপীরপাড়া গ্রাম থেকে মেহেদী হাসানের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার রাতের কোনো এক সময় তিনি নিজ ঘরের সিলিংয়ে দড়ি দিয়ে ফাঁস দেন।