পরিবহন ধর্মঘটে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভোগান্তিতে যাত্রী ও পণ্য পরিবহণ

জাকির হোসেন পিংকু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি: সারা দেশের মত আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে হঠাৎ করেই অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি শুরু করেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের পরিবহন শ্রমিকেরা।

rajsahi

ফলে জেলায় চলাচল বন্ধ রয়েছে আন্ত:জেলা ও দুরপাল্লাসহ সকল ধরনের বাস-ট্রাক। ঢাকার সাভারে ট্রাকচাপা দিয়ে এক নারীকে হত্যার দায়ে গত সোমবার এক চালকের মৃত্যুদন্ডাদেশ দেন আদালত। এর আগে চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব তারেক মাসুদ ও সাংবাদিক মিশুক মুনীরসহ পাঁচজনকে বেপরোয়া গতিতে বাস চালিয়ে হত্যার অভিযোগে আদালত চালক জামির হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করেন। এরই প্রতিবাদে এই কর্মসূচি।

এর আগে গত ২৩ ফেব্রুয়ারী ১ ঘন্টা সড়ক অবরোধ ও পথ সমাবেশ করে দন্ডাদেশর প্রতিবাদ জানায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের শ্রমিকরা। জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক বলেন, সোমবার রাত ১১টায় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমীক ফেডারেশন থেকে তাঁকে ধর্মঘটের বিষয়টি জানানো হয়। হঠাৎ ডাকা ধর্মঘটে দূর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। সেই সাথে বন্ধ হয়ে গেছে পণ্য পরিবহন।

যাত্রীরা চলাচলে ছোট ও স্থানীয় যানবাহনের সাহায্য নিচ্ছেন। সোনামসজিদ স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেণ্ট এসাসিয়েসনের সভাপতি হারুনুর রশিদ বলেন, বন্দরে দুপুর নাগাদ পেঁয়াজ, ফলসহ শুধু পচনশীল পণ্যবাহী প্রায় দেড়শত ট্রাক আটকা পড়েছে। তাঁরা সেগুলি বিশেষ ব্যবস্থায় গন্তব্যে পৌঁছানোর চেষ্টা করছেন।

বিষয়টি স্বীকার করে মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, বন্দরসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে আটকা পড়া পচনশীল পণ্য বিশেষ ব্যবস্থায় পার করার জন্য তারাও বিভিন্ন মহলে দেন দরবার করছেন। তবে বন্দরে ভারতীয় ট্রাক প্রবেশ স্বাভাবিক রয়েছে। এতে ট্রাক ও বিভিন্ন আমদানী করা পণ্য জট বাড়ছে।

জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বলেন, কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তারাও ধর্মঘটে সমর্থন দিয়েছেন। স্থানীয়ভাবে এ ব্যাপারে কোন পক্ষের সাথে কোন আলোচনা হয়নি। অতি জরুরী গাড়ী ছাড় দেয়া হচ্ছে। ধর্মঘটে জেলার কোথাও কোন অরাজকতার সংবাদ এখনও জানা যায়নি।

জেলা পুলিশ সূত্র ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, তারা পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছেন। তবে পরিবহন শ্রমীকরা এখন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছেন। এদিকে ধর্মঘট অবসানের ব্যাপারে বিকেল পর্যন্ত কেউ কিছু জানাতে পারেনি।