যুক্তরাজ্যে ঢুকতে পারবেন না মেসি-নেইমার!

news_picture_43571_messi


স্পোর্টস ডেস্কঃ

চলতি ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে বার্সেলোনা কোয়ার্টার ফাইনালেই উঠতে পারবে কি-না তা নিয়ে ঘোর সন্দেহ। শেষ ষোলোর প্রথম লেগে তারা ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেই’র (পিএসজি) মাঠ থেকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে ফিরেছে। কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে হলে ৮ মার্চের ফিরতি লেগে ইতিহাস গড়তে হবে।

এবারের আসরের ফাইনাল হবে ৮ জুন যুক্তরাজ্যের কার্ডিফে। কিন্তু ফাইনাল ম্যাচ নিয়ে একই চিন্তা। বার্সেলোনা যদি ফাইনালে ওঠে তাহলে লিওনেল মেসি ও নেইমারকে সে দেশের ভিসা দেয়া হবে না। এমন শঙ্কার কথাই জানালেন ইউয়েফার প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার সেফেরিন। কর ফাঁকি মামলায় লিওনেল মেসি ও নেইমারের বিচারিক কার্যক্রম চলছে স্পেনের আদালতে। ইউরোপ থেকে ‘বেক্সিট’-এর পর যুক্তরাজ্যের আইন অনুযায়ী কারো বিরুদ্ধে বিচারিক কার্যক্রম চললে তারা নিজেদের দেশের ভিসা দেননা। এই আইনের প্রয়োগ দেখা গেছে ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের গ্রুপপর্বে।

ফরাসি ক্লাব পিএসজি’র ডিফেন্ডার সার্জি আরিরকে যুক্তরাজ্য ভিসা দেয়নি। তারা তখন আর্সেনালের বিপক্ষে খেলতে যায়। আইভরি কোস্টের সার্জির বিরুদ্ধে দেশটিতে একটি বিচারিক কার্যক্রম চলছিল বলে তারা তাকে যুক্তরাজ্যের ভিসা দেয়নি। একই পরিস্থিতিতে পড়তে পারেন বার্সেলোনার মেসি ও নেইমার। এ বিষয়ে ইউয়েফার প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার সেফেরিন বলেন, ‘নেইমার ও মেসির বিরুদ্ধে স্পেনের আদালতে বিচারিক কার্যক্রম চলছে। এ বছর চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনাল হবে কার্ডিফে। তাদেরকে যুক্তরাজ্যের ভিসা নাও দেয়া হতে পারে। ভাবুন তো, কেমন লাগে? ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা যা-ই করুক তারা ইউরোপের অন্য যেকোনো দেশে গিয়ে খেলতে পারবে।

কিন্তু অন্য দেশের খেলোয়াড়রা ইংল্যান্ডে ঢুকতে পারবে না।’ স্লোভেনিয়ান এ ভদ্রলোক আরো বলেন, ‘বিচারিক কার্যক্রম চলার কারণে ইউরোপের কোনো খেলোয়াড়কে যদি ইংল্যান্ডে ঢুকতে না দেয়া হয় তাহলে সেখানে ইউরোপিয়ান ফুটবল ম্যাচ আয়োজন নিয়ে তো আমাদের ভাবতে হবে।’