কালিয়াকৈরে পরকিয়া প্রেমের জের ধরে প্রবাসির স্ত্রীর আত্মহত্যা

আলমগীর হোসেন, কালিয়াকৈর প্রতিনিধি: গাজীপুরে কালিয়াকৈরে পরকিয়া প্রেমের জের ধরে আজ বুধবার দুপুরে নাছরিন আক্তার নামে প্রবাসির স্ত্রী কিটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেছে। নিহত নাছরিন উপজেলার জালশুকা গ্রামের সৌদী প্রবাসি মোঃ মমিন উদ্দিনের স্ত্রী।

atohor

এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবৎ উপজেলার জালশুকা গ্রামের সমন আলীর পুত্র মোঃ মমিন উদ্দিন স্ত্রী-সন্তান দেশে রেখে চাকুরীর কারণে সৌদী আরব বসবাস করে। এই সুযোগে একই গ্রামের মৃত সোবহান মাস্টারের পালিত পুত্র মোঃ আনিছুর রহমানের সাথে প্রবাসি মমিনের স্ত্রী নাছরিন আক্তারের পরকিয়া প্রেম গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে বিষয়টি জানতে পেরে শশুর বাড়ির লোকজন রবিবার সকালে নাছরিনকে তাদের বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। পরে থানা পুলিশের সহযোগিতায় ওই দিন বিকালেই নাছরিন শশুর বাড়ি ফিরে আসে।

এ ঘটনার একপর্যায়ে নাছরিন আজ বুধবার দুপুরে গৃহে রক্ষিত কীটনাশক পান করে। বিষয়টি জানতে পেরে শশুর বাড়ির লোকজন নাছরিনকে মূমূর্ষ অবস্থায় দ্রুত টাঙ্গাইলের মির্জাপুর কুমুদীনি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার মৃত ঘোষণা করে।

এ ব্যাপারে টেলিফোনে আলাপকালে অভিযুক্ত পরকিয়া প্রেমিক আনিছ তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নাছরিনকে তার দেবর সজিব উত্ত্যক্ত করতো। আমার কাছে নাছরিন এ অভিযোগ করলে সজিব ক্ষুদ্ধ হয়ে নাছরিনকে মারধর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। এ ঘটনায় নাছরিন থানায় একটি জিডি করলে পুলিশ তাকে শশুর বাড়ি পৌঁছে দেয়।

এ রিপোর্ট লেখা পযন্ত সজিবের কোন সন্ধান না পাওয়ায় তার স্বাক্ষাতকার নেয়া সম্ভব হয়নি। আটাবহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আলা উদ্দিন মোল্লা নাছরিনের আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।