গাবতলীতে শ্রমিকদের তাণ্ডবের ঘটনায় ৩ মামলা, আসামি সহস্রাধিক

সময়ের কণ্ঠস্বর- রাজধানীর গাবতলীতে পরিবহন শ্রমিকদের তাণ্ডব ও পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ এবং গাড়ি ভাঙচুর-অগ্নি সংযোগের ঘটনায় তিনটি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় ৪০ জনের নাম উল্লেখ করে এক হাজারের বেশি শ্রমিককে আসামি করা হয়েছে।

বুধবার রাতে রাজধানীর দারুসসালাম থানায় এসব মামলা হয়। মামলার তিনটির মধ্যে দুটি মামালার বাদী হয়েছে পুলিশ। অপর মামলাটি করেছেন একজন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি।

দারুস সালাম থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) সেলিমুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

hamতিনি জানান, ধর্মঘটের নামে মঙ্গল ও বুধবার গাবতলী এলাকায় পরিবহন শ্রমিকরা তাণ্ডব চালিয়েছে। এ ঘটনায় তিনটি মামলা হয়েছে। মামলায় কয়েকজন পরিবহন শ্রমিক নেতাও রয়েছেন।

এর আগে গাবতলীর ঘটনায় শ্রমিকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে বলে জানিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলার কয়েক ঘণ্টা পরে গতকাল বুধবার (১ মার্চ) রাতে এ তিন মামলা হলো।

উল্লেখ্য, মানিকগঞ্জের আদালতে চলচিত্রকার তারেক মাসুদ ও সংবাদিক মিশুক মুনীর নিহত মামলায় একজন বাসচালকের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের প্রতিবাদে বাস ধর্মঘট পালন করছিলেন কয়েকটি অঞ্চলের শ্রমিকরা। সরকারি পর্যায়ে বৈঠকের পর সেই ধর্মঘট প্রত্যাহার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল সোমবার।

এরই মধ্যে সাভারের একটি সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নারী নিহত হওয়ার মামলায় সোমবার ঢাকার জজ আদালত মীর হোসেন নামের একজন চালকের মৃত্যুদন্ডের রায় দেন। এ নিয়ে সোমবার রাতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির কর্মসূচি ঘোষণা দেয়।

পূর্বঘোষণা ছাড়াই যানচলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় রাজধানীসহ সারাদেশের জনজীবনে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়। ঢাকার সঙ্গে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে পুরো দেশ।

এদিকে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গাবতলীতে মঙ্গল ও বুধবার পুলিশের সঙ্গে পরিবহন শ্রমিকদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে মারা যায় এক যুবক।