ঠোঁটে লিপস্টিক, হাতের নখে ম্যাচিং নেইল পলিশ আর নাখে নথ ‘মিশা’র !

বিনোদন ডেস্ক, সময়ের কণ্ঠস্বর: পর্দার সাধারণত খারাপ লোক চরিত্রে অভিনয় করা মিশা সওদাগর চলচ্চিত্রে কাজ শুরু করেন ১৯৮৬ সালে। এফডিসি আয়োজিত নতুন মুখ কার্যক্রমে নির্বাচিত হন মিশা । ছট্কু আহমেদ পরিচালিত ‘”চেতনা”’ ছবিতে নায়ক হিসেবে অভিনয় করেন ১৯৯০ সালে।‘”অমরসঙ্গী”’ ছবিতেও তিনি নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেন, কিন্তু দুটোর একটিতেও সাফল্য পান নি। পরবর্তীতে বিভিন্ন পরিচালক তাকে খল চরিত্রে অভিনয়ের পরামর্শ দেন । তার পর থেকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয় নি । তমিজ উদ্দিন রিজভীর ‘”আশা ভালোবাসা”’ ছবিতে ভিলেন চরিত্রে অভিনয় শুরু করেন ।আউটডোর শ্যুটিং শেষ করে ফিরে একে একে সাতটি ছবিতে খলনায়ক চরিত্রে অভিনয় করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। মিশা ১৯৯৪ সালে ‘”যাচ্ছে ভালোবাসা”’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে প্রথম খলনায়ক হিসেবে পর্দায় উপস্থিত হন।এ পর্যন্ত হাজারেরও বেশি চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন গুণী এই অভিনেতা।

মিসড কল’ নামের একটি ছবিটি তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের চরিত্রে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী মিশা সওদাগর। ছবিটি পরিচালনা করেছেন সাফি উদ্দীন সাফি। আগামীকাল শুক্রবার সারাদেশে ছবিটি মুক্তি পাবে।

ছবিটিতে অভিনয়ের জন্য ঠোঁটে গাঢ় লাল লিপস্টিক, হাতের নখেও ম্যাচিং করা নেইল পলিশ, নাখে নথ পরতে হয়ে মিশাকে। জানিয়েছেন, প্রতিদিনই শুটিংয়ের আগে নাকি দুই ঘণ্টা সময় লাগত মেকআপ করতে।

mishaগত বছরের মার্চে ছবিটির একটি গানের দৃশ্যে নাচের সময় হঠাৎ তার ডান পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে যায়। এজন্য বেশ কয়েকদিন তাকে বিশ্রামেও থাকতে হয়েছিল।

ছবিটিতে নিজের চরিত্র সম্পর্কে মিশা সওদাগর বলেন, ছবিতে আমার চরিত্রটি তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের অধিকার আদায়ের প্রতিচ্ছবি। চরিত্রটির মাধ্যমে আমি এই সম্প্রদায়ের মানুষকে সম্মান জানাতে চেয়েছি। তাদের দাবি ও সংগ্রামগুলো মেনে নিয়ে তাদের স্বীকৃতি দেয়া উচিত। আমরা সবাই মানুষ, এটাই বড় কথা।

‘মিসড কল’ ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন বাপ্পি, নবাগত মুগ্ধ এবং বাপ্পারাজ।