মাধবপুরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে স্বামী গ্রেফতার

হামিদুর রহমান, মাধবপুর প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের মাধবপুরে গৃহবধুকে গলায় ওড়না প্যাচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে এক পাষন্ড স্বামী। পরে মৃত দেহের পেটে বৈদূতিক শক দিয়ে ঘটনাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করে।

sasrod

উপজেলার বহরা ইউনিয়নের গাংগাইল গ্রামের আজ বৃহস্পতিবার ভোর রাতে এ নির্মম ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঘাতক স্বামী আল আমিন (২৫) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, প্রায় ৬ মাস আগে উপজেলার গাংগাইল গ্রামের মৃত ফরিদ মিয়ার মেয়ে জরিনা বেগম ঝরনা (১৯ কে বিয়ে দেওয়া হয় একই উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামের মৃত জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে আল আমিনের সঙ্গে। বিয়ের কয়েক মাস পরেই তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ দেখা দেয়। এ নিয়ে আল আমিনকে সন্দেহ করত তার স্ত্রী। গত ৬ দিন আগে আল আমিন তার শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে আসে।

আজ বৃহস্পতিবার ভোর রাতের কোন এক সময় আল আমিন তার স্ত্রীকে গলায় ওড়না প্যাচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে এটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে স্ত্রীর পেটে বৈদূতিক শট দেয়। আজ বৃহস্পতিবার সকালে আল আমিন তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনকে ঢেকে বলেন তার স্ত্রী বৈদূতিক শট খেয়ে মারা গেছে। তখন জরিনার পরিবারের লোকজনদের মধ্যে সন্দেহ সৃষ্টি হয়। তারা আল আমিন কে আটক করে পুলিশ কে খবর দেয়।

খবর পেয়ে থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম পলাশ একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে এবং আল আমিনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে লাশ ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরন করে।

থানার পরির্দশক (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম পলাশ সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আল আমিন তার স্ত্রীকে হত্যার দায় স্বীকার করেছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।