‘নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে, সরকার কেবল সহায়তা করবেন’

স্টাফ রিপোর্টার, সময়ের কণ্ঠস্বর . নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকার নিয়ে বিএনপির দাবির বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘অনেকে বলেন শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হবে। কিন্তু এটি ভুল, নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে। নির্বাচনকালীন সরকারের হাত-পা বাঁধা থাকবে। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলো কমিশনের অধীনে থাকবে। সরকার কেবল সহায়তা করবে।’

শুক্রবার দলের সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন,‘সহায়ক সরকার বলে সংবিধানে কিছু নেই। অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের কথা বলা হয়েছে। এতে আমাদের আপত্তি নেই, গতবারও এটি ছিল।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘৫ জানুয়ারি বিএনপি নির্বাচনে আসেনি, কিন্তু নির্বাচন থেমে থাকেনি। এবার নিবন্ধন বাতিল হওয়ার ভয়ে বিএনপি নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত নেবে না।’

কাদের বলেন, ‘আমি তো জানি, তারা (বিএনপি) নির্বাচনে আসবে। নিবন্ধন হারানোর ঝুঁকি নিয়ে তারা নির্বাচন করবে না, এটা হবে না। সংবিধান ও নির্বাচন কারো জন্য অপেক্ষা করবে না। কে এলেন, না এলেন; তার জন্য নির্বাচন অপেক্ষা করবে না।’

আগামী নির্বাচন নিয়ে দলের প্রস্তুতির কথা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কাদের। তিনি বলেন, ‘গত সম্মেলনের পর থেকেই উন্নয়নের ধারাকে সামনে এগিয়ে নিতে; দলকে নতুন মডেলে সাজানোর পরিকল্পনা নিয়েছি আমরা। যাতে আগামী নির্বাচনে জনগণের সামনে শৃঙ্খলাবদ্ধ, আধুনিক, ঐক্যবদ্ধ প্রস্তুতি নিয়ে নির্বাচনের লড়াইয়ে ঝাঁপিয়ে পড়তে পারি।’

obaidul with lgo

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় কোন্দলের বিষয়টি নাকচ করে দেন কাদের। তিনি বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জে সবাই মিলে নির্বাচন করে জয় ছিনিয়ে আনতে পারলে কুমিল্লায় কেন হবে না? আওয়ামী লীগ বড় দল, ভাইয়ে ভাইয়ে একটু সমস্যা হতে পারে; হলে তা সমাধানও করা যাবে।’

শনিবার মহিলা আওয়ামী লীগের ৫ম সম্মেলনকে সামনে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে কাদের বলেন, ‘নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে, স্মার্ট, মডার্ন, শিক্ষিত ও ত্যাগীদের নিয়ে কমিটি গঠন করা হবে।’ পর্যায়ক্রমে সহযোগী সংগঠন ও দলের বিভিন্ন কমিটির সম্মেলন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা ও সুনামগঞ্জে নারীদের দলীয় মনোনয়ন প্রদানের বিষয় তুলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দলে ৩৩ শতংশ নারীর অংশগ্রহণের যে বাধ্যবধকতা তা ক্রমান্বয়ে পূরণের চেষ্টা করছি আমরা।’

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আশরাফুন্নেসা মোশাররফ।