ফুলবাড়ীতে কলেজ ছাত্রলীগ ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনায় মানববন্ধন

অনীল চন্দ্র রায়, ফুলবাড়ী প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর ডিগ্রী মহাবিদ্যালয়ের কলেজ ছাত্রলীগ ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষে পাঁচ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত এক ছাত্রলীগ কর্মিকে ফুলবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

manob-bobdhon

আজ শনিবার ওই কলেজের শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা চেয়ে ফুলবাড়ী টু নাগেশ্বরী সড়কে সাড়ে ১১ টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত মানববন্ধন করেছে ছাত্র/ছাত্রীরা। এ নিয়ে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যে কোন সময় আবারও বড় ধরনের সংঘর্ষের আশংকা করছে এলাকাবাসী।

সরজমিনে জানা যায়, কাশিপুর ডিগ্রী মহাবিদ্যালয়ের ১ম বর্ষের এক ছাত্রীর সঙ্গে একই প্রতিষ্ঠানের ১ম বর্ষের ছাত্র হাসানের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক সময় এসে ওই ছাত্রী তার প্রেমের কথা অস্বীকার করলে দুই জনের মধ্যে মনমালিন্যতার সৃষ্টি হয়। বিষয়টি পারিবারিক ভাবে মিমাংসা করা হলেও শেষ পর্যন্ত কলেজ ছাত্রলীগের নেতা কর্মিরা মেনে নিলেও শিক্ষার্থী পরিমল গ্রুপ তা মানতে পারেনি।

পরবর্তিতে এসে কাশিপুর ডিগ্রী মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাওন ও কাশিপুর কলেজর ডিগ্রী ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী পরিমল গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে পাঁচ জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন, ১ম বর্ষের ছাত্র মাসুদ, আব্দুল লতিফ, হাসান, মাসুদ মিয়া, ডিগ্রী ১ম বর্ষের পরিমল চন্দ্র।

অন্যদিকে সকল ছাত্র/ছাত্রীদের নিরাপত্তা চেয়ে শিক্ষার্থীরা আজ শনিবার সকাল ১১ টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত মানববন্ধন করেছে। এ সময় বক্তব্য রাখে, কলেজ শাখার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহারিয়ার রহমান শাওন, ১ম বর্ষের জান্নাতুল ফেরদৌস, ছালমা খাতুন প্রমূখ। এ সময় ফুলবাড়ী নাগেশ্বরী সড়কে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটে।

এ ব্যাপারে ডিগ্রী মহাবিদ্যালয়ের গেটের সামনের চায়ের দোকানদার আহাম্মদ আলী জানান, শুধুমাত্র অধ্যক্ষের প্রশাসনিক দুর্বলতার কারনে আজকের এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এমদাদুল হক মিলন জানান, যারা ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনার জন্য দাবি জানাচ্ছি। তবে অহেতুক কেউ যেন হয়রানীর শিকার না হন সেটাও দেখতে হবে।

এ ব্যাপারে কাশিপুর ডিগ্রী মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ আব্দুল্ল্যা হেল বাকী সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, এটা একটি তুচ্ছ ঘটনা। ছাত্র/ছাত্রীরা মানববন্ধন করলেতো আমাদের কিছু করার নেই। ওরা যা ভালো মনে করেছে তাই করছে।