‘মোংলা বন্দর ব্যবহারে ব্যবসায়ীদের সব ধরনের সহযোগিতা দেয়া হ‌বে’

জিএস‌কে শান্ত, খুলনা ব্যুরো:

নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, মোংলা বন্দর ব্যবহারে ব্যবসায়ীদের সব ধরনের সহযোগিতা দেয়া হবে। এ অঞ্চলের উন্নয়নের স্বার্থে ব্যবসায়ীদের মোংলা বন্দরকে ব্যবহারের পরামর্শ দেন। শ‌নিবার (৪ মার্চ) বিকেলে খুলনা সার্কিট হাউজ সম্মেলন কক্ষে মোংলা বন্দর উপদেষ্টা কমিটির ১৩তম সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তি‌নি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, মোংলা বন্দরকে ঘিরে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অর্থনৈতিক অবস্থা দিন দিন আরও বেগবান হ‌চ্ছে। সরকার মোংলা বন্দরকে কার্যকর করতে বন্দরের পার্শ্ববর্তী এলাকায় রিফাইনারী, গার্মেন্টস ও ভারী শিল্প নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

সভায় মোংলা বন্দরের মাধ্যমে পণ্য আমাদানি-রপ্তানি বৃদ্ধির বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। এগুলোর মধ্যে কাস্টমস কর্তৃপক্ষকে পণ্য আমদানি ও রপ্তানিতে দ্রুত সময়ে ক্লিয়ারিং প্রদান করা, বন্দরের নিরাপত্তা জোরদারসহ পণ্যের কন্টেইনার ট্রাকিং সিস্টেম আধুনিকিকরণ করা। এছাড়া খুলনা, রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগের মিলগুলোতে ব্যবহৃত কাঁচামাল, কৃষিকাজে ব্যবহৃত সার আমদানি করা এবং পাট, চিংড়ি ও মাছ রপ্তানিতে এ বন্দরকে বাধ্যতামূলক ব্যবহারের জন্য আলোচনা করা হয়। তাছাড়া অভ্যন্তরীণ সমস্যা সমাধানে চট্টগ্রাম, মোংলা, পানগাঁ বন্দর, কাস্টমস ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের মধ্যে সমন্বয় সভা করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় পণ্য পরিবহনে ভাড়া কমানোর জন্য শিপিং এজেন্টস এ্যাসোসিয়েশনকে অনুরোধ জানানো হয়।

shahajahan-khan

সভায় বাগেরহাট-৩ আসনের সংসদ সদস্য তালুকদার আব্দুল খালেক, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর এ কে এম ফারুক হাসান সহ মোংলা বন্দর উপদেষ্টা কমিটির সদস্যগণ উপস্থিত ছি‌লেন।