নারীদের মেধা কম বেতনও কম হওয়া উচিত!

নিউজ ডেস্ক,সময়ের কণ্ঠস্বর ~ বিশ্ব আজ এগিয়ে যাচ্ছে, নারী ও পুরুষ কাধে কাধ মিলিয়ে অসম্ভবকে সম্ভব করছে।শ্রমিক ও দিন মজুরি থেকে শুরু করে রাজনীতি পর্যন্ত প্রতিটি পেশায় নারীরা তাদের যোগ্যতা প্রমান করে সফলতা ছিনিয়ে আনছে। কিছু পেশায় নারীদের প্রমোশন নিতে  পুরুষদের সঙ্গে রীতিমত প্রতিযোগিতা করে নিজেদের যোগ্যতা ও সামর্থ্য প্রমান করে সাফল্যে অর্জিত  হচ্ছে।উন্নত দেশ গুলির মত উন্নয়নশীল দেশগুলিও দ্রুত জেন্ডার বৈষম্য কমে আসছে।এসময়ে জেন্ডার বৈষম্য কমাতে নেত্বিত্ত দেওয়া খোদ ইউরোপীয় পার্লামেন্টে।

uropio union

নারীদের সম্পর্কে বিতর্কিত ও মানহানিকর মন্তব্য করে ইউরোপীয় পার্লামেন্টে পোল্যান্ডের এক সদস্য শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছেন।

জ্যানুজ করয়িন-মিক্কি নামের ওই পার্লামেন্ট সদস্য বলেছেন, নারীরা দুর্বল, ছোট এবং কম বুদ্ধিসম্পন্ন, তাদের বেতনও কম হওয়া উচিত।

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট অ্যান্টনিও তাজানি বলেছেন, সহকর্মীদের সম্পর্কে এ মন্তব্য করে পোলান্ডের ওই সদস্য সংগঠনটির নীতিমালা লংঘন করেছেন কিনা তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত করা হচ্ছে।

পার্লামেন্টের নীতিমালা অনুযায়ী, কারও সম্পর্কে মানহানিকর, বর্ণবাদী বা ভীতি প্রদর্শনমূলক ভাষা ও আচরণ নিষিদ্ধ।

নারীদের সম্পর্কে লজ্জাজনক মন্তব্যের কারণে পোল্যান্ডের এই সদস্যের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপে পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্টকে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে দেশটির সোশ্যালিস্ট অ্যান্ড ডেমোক্রেটস (এসঅ্যান্ডডি) পার্টি।

পার্লামেন্টের গণমাধ্যম অফিস জানা যায় যে, এ ধরনের আচরণের শাস্তি তিরস্কার থেকে জরিমানা এবং সাময়িক বহিষ্কারও হতে পারে।