বুড়িমারী স্থলবন্দরে চার শতাধিক উর্দু বইসহ যুবক আটক

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় বুড়িমারী স্থলবন্দরের সীমান্ত থেকে চার শতাধিক উর্দু ভাষার বইসহ আসিফ (২১) নামে এক যুবককে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। শনিবার সন্ধ্যায় বুড়িমারী জিরোপয়েন্টে পরিত্যক্ত অবস্থায় বই গুলি উদ্ধার করা হয়। পরে বইয়ের খোঁজে ঐ যুবক এসে বিজিবির হাতে আটক হন। আটক যুবক নীলফামারীর সৈয়দপুর এলাকার জামাল উদ্দিনের ছেলে। ঐ এলাকার রেলগেটে তার একটি মদিনা লাইব্রেরি রয়েছে।

বুড়িমারী স্থলবন্দর বিজিবি সূত্র জানায়, শনিবার সন্ধ্যায় বুড়িমারী জিরোপয়েন্টে কে বা কারা একটি প্যাকেট রেখে যায়। পরে কয়েকজন স্থানীয় শ্রমিক প্যাকেটটি খুলে উর্দু ভাষায় লেখা বই গুলো দেখতে পান। পরে সেটি স্থানীয় বিজিবি ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়।

অনুসন্ধান শেষে বিজিবি সদস্যরা জানতে পারেন, সৈয়দপুর রেলগেটের মদিনা লাইব্রেরির স্বত্বাধিকারী আসিফ প্যাকেটটি ভারত থেকে চোরাই পথে আনার ব্যবস্থা করেন। পরে তিনি বইয়ের খোঁজে এসে বিজিবির হাতে আটক হন।

বুড়িমারী স্থলবন্দরের কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার সিরাজ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

burimari

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিজিবির একজন গোয়েন্দা সদস্য সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, ‘তরিকা নির্ভর এসব বই সৈয়দপুরের উর্দুভাষী লোকজনের জন্য আনা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে কোনও ধরনের উত্তেজনা ছড়াতে এই বইগুলো আনা হয়েছে কি না তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে’।

লালমনিরহাট-১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল গোলাম মোর্শেদ সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, ‘ভারত থেকে আনার উর্দুভাষী ৩৮৫টি বই উদ্ধার করা হয়েছে। নীলফামারীর সৈয়দপুর রেল গেটের মদিনা লাইব্রেরির পরিচালককে মো. আসিফকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। দেশবিরোধী ও সমাজ বিরোধী কোনও বই পাওয়া গেলে প্রচলিত আইনে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে বইগুলো পরীক্ষা-নীরিক্ষা চলছে।