রাঙামাটিতে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলছে

রাঙামাটি প্রতিনিধি – পার্বত্য-বাঙালি ছাত্র পরিষদ ও পার্বত্য নাগরিক পরিষদের রাঙামাটিতে আজ সোমবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালিত হচ্ছে।

রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি ও নিয়োগে বৈষম্যের প্রতিবাদ এবং চাকরির ক্ষেত্রে পার্বত্য-বাঙালি কোটা চালুর দাবিতে সংগঠন দুটি এ হরতাল পালন করছে।

হরতালের সমর্থনে সকাল থেকেই রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পিকেটিং করছে সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। শহরের রিজার্ভ বাজার, বনরূপা, তবলছড়ি, কলেজগেট ও ভেদভেদী এলাকায় পিকেটিং করতে দেখা গেছে তাদের। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে অবস্থান নিয়েছে।

হরতালের কারণে রাঙামাটি শহরের অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ আছে। শহর থেকে উপজেলা বা পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোর উদ্দেশে কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। জেলা শহর ছাড়াও লংগদু, বাঘাইছড়ি, কাপ্তাই, কাউখালী উপজেলা থেকেও শান্তিপূর্ণ হরতাল পালিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

rangamati-hortalপার্বত্য-বাঙালি ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে আজ আমরা হরতাল পালন করছি। যত দিন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আমাদের দাবি না মানবে, তত দিন আমরা কর্মসূচি পালন করে যাব এবং আরো কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করব।’ তিনি বহিষ্কৃত বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র শামসুজ্জামান বাপ্পীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানান।

রাঙামাটির কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহম্মদ রশীদ বলেন, ‘শান্তিপূর্ণভাবেই হরতাল পালিত হচ্ছে, কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাইনি। আমাদের বাড়তি পুলিশ শহরে দায়িত্ব পালন করছে।’