এনজিও আশা’র প্রতিবাদ, প্রতিবেদকের বক্তব্য

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

চলতি মাসের ৩ তারিখে শীর্ষ অনলাইন নিউজ পোর্টাল সময়ের কণ্ঠস্বরে ‘‘আশার ঋনে কাদছেন রহিমা, ভেঙ্গে নিলো একমাত্র ঘরটি’’ শিরোনামে প্রচারতি সংবাদটির প্রতিবাদ পাঠিয়েছেন এনজিও আশা’র লালমনিরহাট ডিস্ট্রিক ম্যানেজার আমিনুল ইসলাম। তিনি তার প্রতিবাদে বলেছেন, পরিবেশিত সংবাদটি মিথ্যা, বানোয়াট এবং ভিত্তিহীন। সংস্থার ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার জন্য সংবাদ শিরোনাম করা হয়।

তিনি তার প্রতিবাদে বলেন, সদস্য রহিমা ১৮/০৮/১৬ ইং তারিখে সংস্থা হতে ২৬ হাজার টাকা ঋন গ্রহণ করে ০৪ কিস্তি দেয়ার পর ২০ হাজার ৪শত টাকা অবশিষ্ট ঋন নিয়ে স্বামী সন্তানসহ কাজের সন্ধানে ঢাকা চলে যায়। এই সুযোগে সৈয়দ আলী নামক এক ব্যাক্তি তার টিনসেট ঘর বিক্রি করে দেয় এবং এর দায় আশা’র কর্মীদের উপর চাপিয়ে দেয়ার ব্যর্থ চেষ্টা করা হয়। প্রকৃত পক্ষে এর সাথে আশার কোন কর্মী জড়িত নয়। আমরা তার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

asa-protibad

প্রতিবেদকের বক্তব্য: সংবাদটিতে এনজিও আশা’র সদস্য রহিমা বেগমের বক্তব্যসহ সকলের বক্তব্য প্রচার করা হয়। তার বক্তব্য অনুযায়ী স্থানীয় সৈয়দ আলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এনজিও আশা’র রেফারেন্স দিয়েই রহিমার ঘর বিক্রির কথা স্বীকার করেন। তিনি নিজেকে রহিমা’র ঋণের জামিনদার দাবী করেই বলেন ঘর বিক্রি করে ঋণের কিস্তি পরিশোধ করেছেন। তার বক্তব্যের প্রেক্ষিত আশা’র লালমনিরহাট সদর ব্র্যাঞ্চ ম্যানেজার নুরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি পুরো ঘটনাই অস্বীকার করেন আর তার বক্তব্যটি সেভাবেই উপস্থাপন করা হয়। সংশ্লিষ্ঠ সকলের ভিডিও বক্তব্যসহ মোবাইল রেকর্ড সংরক্ষিত রয়েছে।