নবীগঞ্জে ফেন্সিডিলসহ প্রাইভেট কার আটক

মতিউর রহমান মুন্না, নবীগঞ্জ প্রতিনিধি: ঢাকা সিলেট মহাসড়কের নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি এলাকায় ৩শ ২০ বোতল ফেন্সিডিলসহ একটি প্রাইভেট কার আটক করেছে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ।

f-and-gari-atok

আজ সোমবার বিকেলে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এ এম আতাউর রহমানের নেতৃত্ব ফেন্সিডিল ভর্তি কার আটক করা হলেও ভিতরে থাকা লোকজন পালিয়ে যায় আগেই।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বি.বাড়িয়ার সিমান্ত এলাকা থেকে ঢাকা সিলেট মহাসড়ক দিয়ে ফেন্সিডিল ভর্তি সাদা রং এর একটি প্রাইভেট কার নবীগঞ্জ হয়ে সিলেট যাবে এমন সংবাদ আসে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এ এম আতাউর রহমানের কাছে। এরপরেই কার ও মাদক ব্যবসায়ীদের আটক করতে ফাঁদ তৈরি করেন ওসি আতাউর। সাথে সাথে একদল পুলিশ পাঠিয়ে দেন ঢাকা সিলেট মহসড়কে। থানার এস আই প্রদ্যুৎ ঘোষ চৌধুরীসহ একদল অবস্থান নিয়ে চেকপোস্ট বসান মহাসড়কের আউশকান্দি এলাকায়।

পুলিশের অবস্থান টের পেয়ে (ঢাকা মেট্রো গ ১১- ৮৯৮৪) প্রাইভেট কার থেকে বেড়িয়ে পালিয়ে যায় মাদক ব্যবসায়ীরা। এ সময় ওই গাড়ি তল্লাশি করে ভারতীয় আমদানিকৃত নিষিদ্ধ ৩শ ২০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ফেন্সিডিলসহ কারটি থানা নিয়ে আসা হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট মাদক নিয়ন্ত্রন আইনে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

এস আই প্রদ্যুৎ ঘোষ চৌধুরী জানান, ‘চেক পোস্ট থেকে অনেক দূরে প্রাইভেট কার থেমে দুই জন লোক বেড়িয়ে যায় তখন উভয় দিক থেকে কয়েকটি গাড়ী আসা যাওয়া করে সাথে সাথে আমরা প্রাইভেট কারটি কাছে যাই এবং তল্লাশি করে এক পর্যায়ে সিলিন্ডারের নিচের খালি জায়গায় ফেন্সিডিলের বোতলগুলো পাই। পরে গাড়ীতে কোন মানুষ পাওয়া যায়নি। স্থানীয়রা জানান, পুলিশ দেখে কার থেকে নেমে দুই লোক সিলেট গামী একটি বাসে উঠে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আতাউর রহমান সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের আউশকান্দি এলাকায় চেকপোস্ট বসানো হয়। পুলিশের উপস্থিতি দেখে প্রাইভেট কারটি রেখে পালিয়ে যায় মাদক ব্যবসায়ীরা। পরে কার তল্লাসী করে ৩শ ২০ পিস ফেন্সিডিল পাওয়া যায়। উদ্ধারকৃত ফেন্সিডিলের মূল্য দেড় লক্ষ টাকা হবে বলে জানান ওসি।