মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কার্যক্রম স্থগিত

সময়ের কণ্ঠস্বর – জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলে আবেদনকৃত মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই সংক্রান্ত কাজ হাইকোর্টে রিট পিটিশনের কারণে স্থগিত করা হয়েছে। এ কারণে সারাদেশে যাচাই-বাছাই সংক্রান্ত পরবর্তী সকল কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে বলে সংসদীয় কমিটিকে জানিয়েছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

আজ সোমবার জাতীয় সংসদের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১৬তম বৈঠকে এ তথ্য জানানো হয়।

কমিটির সভাপতি এ বি তাজুল ইসলামে সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, কমিটি সদস্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক মো. আফছারুল আমীন, নুরুন্নবী চৌধুরী, আশেক উল্লাহ রফিক এবং স্বপন ভট্টাচার্য্য। এছাড়া বৈঠকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যপস্থাপনা পরিচালক, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

কমিটির বৈঠকে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) এর সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। কমিটিকে জানানো হয় যে, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলে আবেদনকৃত মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই সংক্রান্ত কাজ রিট পিটিশনের কারণে মহামান্য হাইকোর্ট কর্তৃক স্থগিত করা হয়েছে। উক্ত আদেশের প্রেক্ষিতে সারাদেশে যাচাই-বাছাই সংক্রান্ত পরবর্তী সকল কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে।

muktizoddha-sonodআরো জানানো হয় যে, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের রিট মামলার সংখ্যা ১৬০টি। এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধার সংজ্ঞা নির্ধারণ সংক্রান্ত মামলার নিষ্পত্তির সংখ্যা ২টি। দফাওয়ারী জবাব তৈরি করে বিজ্ঞ আইনজীবির নিকট প্রেরণ করা হয়েছে। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলে আবেদনকৃত মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই সংক্রান্ত কাজ রীট পিটিশনের কারণে মহামান্য হাইকোর্ট কর্তৃক স্থগিত করা হয়েছে। উক্ত স্থগিত আদেশ প্রত্যাহারের পরে সারাদেশে যাচাই-বাছাই সংক্রান্ত পরবর্তী সকল কার্যক্রম সমাধান করার জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের আওতাধীন স্থাবর সম্পত্তিতে শেয়ারিং পদ্ধতির পরিবর্তে নিজস্ব অর্থায়নে বিল্ডিং নির্মাণ অথবা বিদেশি বিনোয়োগকারীদের এই সকল সম্পত্তিতে বিনিয়োগের আহ্বান জানানোর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।

রাজধানীর গুলিস্তান শপিং কমপ্লেক্সের সমস্যা সমাধানের লক্ষে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি কর্তৃক গঠিত ২নং সাব-কমিটির প্রতিবেদন মূল কমিটিতে উপস্থাপন করা হয় এবং উক্ত প্রতিবেদনের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়ে প্রেরণের সুপারিশ করা হয় ।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন মামলাগুলোর পরিমান,বর্তমান অবস্থা এবং কতগুলো মামলায় জয়লাভ ও কতটি মামলায় জয়লাভ করা যায়নি এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন কমিটির বৈঠকে প্রদানের জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।