নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটি সোস্যাল সার্ভিসেস ক্লাবের উদ্যোগে রক্তদান কর্মসূচি

নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের কণ্ঠস্বর:

নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির অন্যতম ক্লাব- নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি সোস্যাল সার্ভিসেস ক্লাব (এনএসইউএসএসসি) প্রতি বছরের মতো এবারো রক্তদান কর্মসূচি পালন করছে। এ কর্মসূচি ৫, ৬ ও ৭ মার্চ পর্যন্ত চলবে। কর্মসূচি এনএসইউ’র ক্যাম্পাসেই করা হচ্ছে। সকলকে রক্তদানে ঊতসাহিত করাই এই আয়োজনের মূল লক্ষ্য। কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন-এর সার্বিক সহযোগিতায় এ কর্মসূচি পালন করা হয়। ১৯৯৮ সালে ৫০ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করার পর থেকে আজ অবধি প্রতিবছর নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির সোস্যাল সার্ভিসেস ক্লাব এই কর্মসূচি পালন করে আসছে। ২০১৫ সালে এসে এর সংখ্যা দাঁড়ায় ৯৪০ ব্যাগে। সর্বশেষ, গত বছর সংগ্রহ করা হয় ১০৪৭ ব্যাগ রক্ত।

ক্লাবটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট হামিদ মুজতাবা সিদ্দিকী জানান, একজন পুরুষের শরীরের ওজনের প্রতি কেজিতে ৭৬ মি.লি. রক্ত থাকে এবং একজন নারীর শরীরের ওজনের প্রতি কেজিতে ৬৬ মি.লি. রক্ত থাকে। কিন্তু একজন মানুষের শরীরে প্রতি কেজিতে প্রয়োজন হয় মাত্র ৫০ মি.লি. রক্ত। এ হিসাবে ওই বাড়তি রক্ত থেকে প্রতি কেজিতে ৮ মি.লি. রক্ত নেওয়া হয়; যা শরীরের কোনো তিই করে না। ৫০ কেজি ওজনের একজন মানুষ বিনাসঙ্কোচে, খুব সহজেই রক্তদান করতে পারেন। রক্তদানের পরে ২০ মিনিট বিশ্রাম নিয়ে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টা প্রচুর পানি পান করলে কোনো সমস্যাই হয় না।

north-south-blood-donationক্লাবটির বর্তমান জেনারেল সেক্রেটারি আসিফ মাহমুদ জানান, ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সের সুস্থ দেহের যেকোন মানুষ রক্তদান করতে পারেন। প্রতি চার মাস পর পর রক্তদান করা যায়।

ক্লাবটির বর্তমান ভাইস প্রেসিডেন্ট সামিউল কবির রোকন বলেন, রক্তদানে ভয়ের কিছু নেই। রক্তদানের পুরো প্রক্রিয়াটি নিরাপদ। একজন বিশেষজ্ঞ সর্বক্ষণ পাশে থাকেন। তাছাড়া রক্তদানে আছে অনেক উপকারিতা। রক্তদানে দেহের রোগ প্রতিরোধ মতা বহুগুণ বেড়ে যায়।

এনএসইউএসএসসি’র রক্তদান কর্মসূচির সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছেন ইফাদ মাল্টি প্রোডাক্টস লিমিটেড ও কোয়ালিটি আইসক্রিম।