উপজেলা ও পৌর নির্বাচনে আঃলীগ ও বিএনপির হাড্ডাহাড্ডি লড়াই, এগিয়ে আঃলীগ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক – নতুন নির্বাচন কমিশনের অধীনে সোমবার দেশের ১৪টি উপজেলা ও ৪টি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে সিলেটের ওসমানীনগর, খাগড়াছড়ির গুঁইমারা ও সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় প্রথমবারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। বাকীগুলোতে উপ-নির্বাচন হয়।

নির্বাচনে এখনো পর্যন্ত বড় ধরনের কোন অনিয়মের খবর পাওয়া যায়নি। এ নির্বাচনে মূলত বড় দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছে। তবে ফলাফলের দিক দিয়ে ক্ষমতাসীন দলই এগিয়ে আছে।

upojela-election

সোমবার সকাল ৮টা থেকে একটানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ শেষে গণনার পর রাতে সংশ্লিষ্ট এলাকার নির্বাচন কর্মকর্তারা ফলাফল ঘোষণা করেন।

প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ-

রাঙ্গাবালীতে আ.লীগ প্রার্থী জয়ী

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে ৩৪ হাজার ৯৭০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন বিজয়ী হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনীত আমির হোসেন মোল্লা হাত পাখা প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ৩০০ ভোট এবং বিএনপি মনোনীত জাহাঙ্গীর হোসেন আকন ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ০৭০ ভোট পেয়েছেন।

গলাচিপায় আ.লীগ প্রার্থী তুহিন জয়ী

পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা পৌরসভা নির্বাচনে ৬ হাজার ২৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আহসানুল হক তুহিন বিজয়ী হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বিএনপি মনোনীত মো. জাহাঙ্গীর হোসেন খান ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ৮১৪ ভোট এবং বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আলহাজ আবু তালেব মিয়া নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে ৭৯৭ ভোট পেয়েছেন।

গুইমারা উপজেলায় চেয়ারম্যান হলেন ইউপিডিএফের উশেপ্রু

খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলা পরিষদের প্রথম নির্বাচনে ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী উশেপ্রু মারমা। তিনি আওয়ামী লীগের মেমং মারমাকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন

নির্বাচনে ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী উশেপ্রু মারমা (আনারস) পেয়েছেন ৬ হাজার ৮৯৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেমং মারমা (নৌকা) পেয়েছেন ৫ হাজার ৭৬৯ ভোট। বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ ইউসুফ (ধানের শীষ) ৩ হাজার ৮৫৫ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী পুন্যকান্তি ত্রিপুরা (ধানের শীষ) ৫ হাজার ৮৭৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী থোয়াই অংগ্য চৌধুরী পেয়েছেন ৪ হাজার ৬৬৮ ভোট।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ঝর্ণা ত্রিপুরা নৌকা প্রতীক নিয়ে ৮ হাজার ১৭২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনৌনীত প্রার্থী হ্লাউসিং মারমা পেয়েছেন ৭ হাজার ৮৯৪ ভোট।

বানারীপাড়া উপজেলায় আ.লীগের প্রার্থী জয়ী

বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী গোলাম ফারুক চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনে গোলাম ফারুক ৭৬ হাজার ৪৪৭ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টি মো. মিজানুর রহমান চোকদার (লাঙ্গল) ৩ হাজার ৫৫০ ভোট পেয়েছেন। বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. শাহে আলম মিয়া (ধানের শীষ) পেয়েছেন ২ হাজার ৯৮৭ ভোট।

সখীপুর পৌরসভায় আ.লীগ প্রার্থী জয়ী

টাঙ্গাইলের সখীপুর পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী একলাছ হায়াৎ সরোয়ার (পানির বোতল) প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

নির্বাচনে দুইজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ওই ওয়ার্ডে ১ হাজার ৮০০ ভোটারের মধ্যে ১ হাজার ৫৪৬ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।এতে (পানির বোতল) প্রতীকে একলাছ হায়াৎ সরোয়ার ৯০০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ফজলুর রহমান (ডালিম) প্রতীকে ৬২৬ ভোট পেয়েছেন।

কুমিল্লা সদর উপজেলায় আ.লীগ প্রার্থী জয়ী

কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম টুটুল বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনে ৪৬ হাজার ৯৯ ভোট পেয়ে তিনি নির্বাচিত হন আমিনুল ইসলাম। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রেজাউল কাইয়ুম পেয়েছেন ১৯ হাজার ৩৫৩ ভোট।

জলঢাকায় ভাইস চেয়ারম্যান হলেন জামায়াতের ফয়সাল

নীলফামারীর জেলার জলঢাকা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী ফয়সাল মুরাদ ৪১ হাজার ৪৭৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আওয়ামী লীগের (নৌকা প্রতীক) উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান বাবু পেয়েছেন ১৫ হাজার ১৩৩ ভোট।এছাড়া অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা জাসদের সভাপতি গোলাম পাশা এলিচ পান ১৪ হাজার ১৩৩ ভোট।

আড়ানী পৌরসভায় নারী আসনে বিএনপি প্রার্থী জয়ী

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভার উপ নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী আসনে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি প্রার্থী ছনিয়া বেগম।

উপ নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী ছনিয়া বেগম (আঙ্গুর ফল) ৮৪৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ প্রার্থী রোকেয়া বেগম (কাঁচি) ৭১০ ভোট পেয়েছেন।এছাড়া বিএনপি প্রার্থী সুলতানা রাজিয়া মলি (মৌমাছি) পেয়েছেন ৪২০ ভোট ও আওয়ামী লীগ প্রার্থী আক্তার জাহান (ভ্যানিটি ব্যাগ) পেয়েছেন ২৪৪ ভোট।

বড়াইগ্রাম উপজেলা আ.লীগ প্রার্থী

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী বেরসকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনে অপর প্রার্থী ছিলেন বিএনপি মনোনিত ধানের শীষ প্রতীকের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম রাসেল। মোট ৮১ কেন্দ্রে ২ লাখ ৭ হাজার ভোটের মধ্যে নৌকা প্রতীক পেয়েছেন ৬৬৪৫৫ ভোট, অপরদিকে ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছে ৩৯২৬০ ভোট।

হোসেনপুর উপজেলায় বিএনপির প্রার্থী বিজয়ী

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী জহিরুল ইসলাম মবিন (ধানের শীষ) প্রতীক নিয়ে ২৭ হাজার ৩০২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ও প্রয়াত উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আয়ুব আলীর ছেলে মোহাম্মদ সোহেল (আনারস) প্রতীক নিয়ে ২১ হাজার ৩২৮ ভোট এবং আওয়ামী লীগ প্রার্থী জহিরুল ইসলাম নূরু (নৌকা) পেয়েছে ১৯ হাজার ২২ ভোট।

গৌরনদীতে আ.লীগ প্রার্থী

বরিশালের গৌরনদী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত (নৌকা)প্রার্থী সৈয়দা মনিরুন নাহার মেরী ৯৮,৯৪৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী (ধানের শীষ) মঞ্জুর হোসেন মিলন পেয়েছেন ২৭৮২ ভোট।

ওসমানীনগরে বিএনপির ময়নুল বিজয়ী

সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলা পরিষদের প্রথম নির্বাচনে ৫২ কেন্দ্রের মধ্যে সবকটি কেন্দ্রের প্রাপ্ত ফলাফলে চেয়ারম্যান পদে বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ময়নুল হক চৌধুরী (ধানের শীষ প্রতীক)।

৫২টি কেন্দ্রে ময়নুল হক চৌধুরী পেয়েছেন ১৯৮৩৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আখতারুজ্জামান চৌধুরী জগলু (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ১৭৮৬৫। এছাড়া আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী আতাউর রহমান (নৌকা প্রতীক) পেয়েছেন ৯৮০৯ ভোট এবং জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী শিব্বির আহমদ (লাঙ্গল প্রতীক) পেয়েছেন ২৪২৪ ভোট।

জগন্নাথপুরে বিএনপি প্রার্থী বিজয়ী

জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি মনোনিত প্রার্থী আতাউর রহমান। ৮৭টি কেন্দ্রে প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যার ভিত্তিতে তিনি এগিয়ে রয়েছেন।

৮৭টি কেন্দ্রের মধ্যে বিএনপির আতাউর রহমান ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ২৯ হাজার ৮৬৩টি ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সৈয়দ আকমল হোসেন নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ২৪ হাজার ২৩টি ভোট।

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় আ.লীগ প্রার্থী বিজয়ী

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আরাফাত হোসেন ৩৯,৪৯১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কাজী আসাদুজ্জামান শাহাজাদা ৩২,২৭২ ভোট পেয়েছেন।

পাবনার সুজানগর ও ঈশ্বরদীতে আ.লীগ প্রার্থী বিজয়ী

পাবনার সুজানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আব্দুল কাদের রোকন বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদেও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মাহমুদা বেগম বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

ঘোষিত ফলাফলে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আব্দুল কাদের রোকন (নৌকা) ৮৬ হাজার ৪৭৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি হাজারী জাকির হোসেন চুন্নু (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৫ হাজার ৮৬৩ ভোট। এ উপজেলায় ৬৩টি ভোট কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। মোট ভোটার ছিল ২ লাখ ২ হাজার ৫১৭ জন। এখানে ভোট পড়েছে ৪৬ দশমিক ১৪ শতাংশ।

অপরদিকে ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মাহমুদা বেগম ২৩ হাজার ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী জান্নাতুন ফেরদৌস রুনু (স্বতন্ত্র) পেয়েছেন ১ হাজার ৮০০ ভোট। এ উপজেলায় ৭৪টি ভোটগ্রহণ চলে। ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ভোটার ২ লাখ ৩৯ হাজার জন।

শেরপুরে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী জয়ী

বগুড়ার শেরপুর পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের উপ-নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী পৌর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া মাসুদ টেবিল ল্যাম্প প্রতীক নিয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

তিনি ১ হাজার ৩শ’ ৩৭ ভোট পেয়ে জয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক ফাহিম উটপাখি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫শ’ ২৮ ভোট।

ঈশ্বরদীতে আ.লীগের প্রার্থী জয়ী

ঈশ্বরদী উপজেলা পরিসদের নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মাহমুদা খাতুন (নৌকা) প্রতীক নিয়ে ২৩ হাজার ১০৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্রপ্রার্থী জান্নাতুল ফেরদৌস (কলস) পেয়েছেন ১ হাজার ৭৬৫ ভোট। মোট ভোটার ছিলেন ২ লাখ ৩৯ হাজার। ভোট পড়েছে ২৫ হাজার ১২১টি।