গোটা এশিয়ায় ঘুষ লেনদেনের শীর্ষে ভারত !

আন্তর্জাতিক ডেস্ক-

“ঘুষ দেয়া-নেয়া আমাদের  সংস্কৃতির এক অপরিহার্য অংশ হয়ে উঠেছে। দুর্নীতির সবচেয়ে প্রকট অংশ ঘুষ।  বিশ্বের সব দেশেই কমবেশি  ঘুষ লেনদেনের ঘটনা ঘটে । কাজ পাওয়ার জন্য বা অপরাধ থেকে বেঁচে যেতে ঘুষ দেয়া-নেয়ার ঘটনা হরহামেশাই ঘটছে। তবে ঘুষের লেনদেনের এমন ঘটনাগুলো আড়ালেই থেকে যায় বেশিরভাগ ক্ষেত্রে।

তবে এবার একটি আন্তর্জাতিক সমীক্ষার রিপোর্টে জানা গেলো,  ঘুষ দেয়া-নেয়ার কর্মকান্ডে গোটা এশিয়ায় সবার ওপরে অবস্থান করছে আমাদের প্রতিবেশি দেশ ভারত। সমীক্ষার ফলাফল বলছে, প্রতি ১০ জন নাগরিকের ৭ জনকেই কোনো না কোনো কারণে ঘুষ দিতে হয় ভারতে ।

অন্যদিকে এই দুর্নীতির পরিমাণ সবথেকে কম জাপানে। জাপানে দুর্নীতির পরিমাণ সবচেয়ে কম। সেখানে ঘুষ চাওয়ার প্রবণতাও কম। সমীক্ষা বলছে, জাপানে মাত্র ০ দশমিক ২ ভাগ মানুষকে বিভিন্ন পরিষেবা পেতে ঘুষ দিতে হয়।

আন্তর্জাতিক দুর্নীতি পর্যবেক্ষক সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের সাম্প্রতিক এক গবেষণায় জানানো হয়েছে, সম্প্রতি ১৬টি এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশের মধ্যে ঘুষ লেনদেনের প্রবণতা নিয়ে এই সমীক্ষা চালায় তারা।

সমীক্ষার তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে ঘুষ চাওয়ার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি ভারতে। জন্ম থেকে মৃত্যু, স্কুল বা হাসপাতালে ভর্তি, সরকারি দপ্তর, পুলিশ বা আদালতে কোনো কাজ করাতে গেলে ঘুষ দিতেই হয়।

সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতে সবচেয়ে বেশি ঘুষ দিতে হয় স্বাস্থ্যক্ষেত্রে। এর পরেই শিক্ষাক্ষেত্র। স্বাস্থ্যক্ষেত্রে ৫৯ ভাগ এবং শিক্ষাক্ষেত্রে ৫৮ ভাগ মানুষকে ঘুষ দিতে হচ্ছে।

সমীক্ষার রিপোর্টে ভারতের পরেই দ্বিতীয় পর্যায়ে রয়েছে ইন্দোনেশিয়ার নাম । সেখানে গড়ে ৬৫ ভাগ মানুষের ঘুষ দেওয়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে।

পরের তালিকায় এসেছে মালয়েশিয়ার নাম। ঘুষ লেনদেনের পরিমান সেখানে ৫৯ শতাংশ। পর্যায়ক্রমে  ভিয়েতনাম ৫৬ শতাংশ, সাউথ কোরিয়া ৫০ শতাংশ।

Bribe-top-in-india-2017

পরের তালিকায় রয়েছে থাইল্যান্ড। সেখানে  ৪১ শতাংশ মানুষ ঘুষের লেনদেন করেন। চতুর্থ তালিকায় রয়েছে, কম্বোডিয়া, পাকিস্তান ও মিয়ানমারের নাম। এই তিনটি দেশে গড়ে ৪০ শতাংশ মানুষকে ঘুষ লেনেদেনের সাথে যুক্ত থাকার কথা বলা হয়েছে সমীক্ষার রিপোর্টে ।

পঞ্চম তালিকায় এসেছে  চীনের নাম । সেখানে মাত্র ২৬ শতাংশ ঘুষ লেন দেনের ঘটনা ঘটে। সমীক্ষায় জানানো হয়েছে চীনে ৭৩ ভাগ মানুষ মনে করেন ঘুষের ঘটনা সেদেশে কমতে শুরু করেছে।

সমীক্ষার পুরো রিপোর্ট দেখতে এখানে ক্লিক করুন

Save