এভাবে বোকা হয়ে গেলেন তামিম!

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক –

দুজনে মিলে দারুণ খেলছিলেন। বাংলাদেশের হয়ে রেকর্ডও গড়েছেন। কিন্তু হঠাৎ করে এটা কী হলো তামিমের? অনেকটা অবহেলাতেই রানআউটের শিকার হলেন দেশসেরা এই ওপেনার!

শুরুতে দুই টাইগার ওপেনারই আউট থেকে একদফা করে বেঁচে গিয়েছিলেন। আর সেই সুযোগটা ভালোভাবেই কাজে লাগাচ্ছিলেন তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। গড়েছেন রেকর্ড জুটিও।

তবে বুধবার গল টেস্টে শেষ পর্যন্ত তামিমের অদ্ভুত আউট আর মুমিনুল হক দ্রুত সাজঘরে ফেরায় দ্বিতীয় দিনটা পুরোপুরি নিজেদের করতে পারেনি বাংলাদেশ।

স্বাগতিক শ্রীলংকার প্রথম ইনিংসে করা ৪৯৪ রানের জবাবে মাঠে নেমে থিতু হওয়ার চেষ্টা করেন তামিম-সৌম্য। কিন্তু ব্যক্তিগত ৪ রানে সুরঙ্গা লাকমালের বলে গালিতে ক্যাচ তুলে দেন সৌম্য। অবশ্য বলটা হাতে জমাতে পারেননি দিলরুয়ান পেরেরা।

এরপর ওই পেরেরার বলে ২৮ রানে আউট থেকে রক্ষা পান তামিমও। সুযোগটা কাজে লাগিয়ে অর্ধশতকও তুলে নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু অদ্ভুত এক আউটে বেশি দূর এগোতে পারলেন না বাঁহাতি এই ওপেনার।

tamim

লক্ষ্মণ সান্দাকানের বলে তামিমের বিরুদ্ধে কট বিহাইন্ডের আবেদন করেন নিরোশান ডিকভেলা। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে উইকেটরক্ষকের হাতে বল রেখেই অহেতুক দৌড় শুরু করলেন তিনি। রান আউটে কাটা পড়ে ৫৭ রানে থামে তার ইনিংস। তামিম কী করেছেন- সাজঘরে ফেরার সময় নিজেই যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না।

তামিম রানআউট হওয়ার আগে ওপেনিং জুটিতে এসেছে ১১৮ রান। টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওপেনিং জুটিতে এটাই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ।

এর পর ৭ রান করে পেরেরার বলে এলবিডব্লু হয়ে ফিরেছেন মুমিনুল হক। ইদানিং ব্যাট হাসছে না টাইগার এই ‘টেস্ট স্পেশালিস্ট’ ব্যাটসম্যানের।

দিন শেষে সৌম্য ৬৬ রানে আর অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ১ রানে অপরাজিত আছেন। তামিমের অদ্ভুত উইকেট বিসর্জনের ঘটনা না ঘটলে গল টেস্টের তৃতীয় দিন হয়তো আরও ভালোভাবে শুরু করতে পারতো সফরকারীরা।

এর আগে কুশাল মেন্ডিসের ১৯৪ রান, আসেলা গুনারত্নের ৮৫ রান, ডিকভেলার ৭৫ রান এবং পেরেরার ৫১ রানে ভর করে ৪৯৪ রানে থামে লংকানদের প্রথম ইনিংস।

বাংলাদেশের হয়ে মেহেদী হাসান মিরাজ ৪টি এবং মোস্তাফিজুর রহমান ২টি উইকেট নেন।