অতিরিক্ত ওজন বাড়ায় ১১টি ক্যান্সারের ঝুঁকি! জানুন, স্বাস্থ্যকর ওজন কত থাকা জরুরী

স্বাস্থ্য ডেস্ক, সময়ের কণ্ঠস্বর – ওবিস অর্থাৎ অতিরিক্ত ওজনের মানুষের কিছু ক্যান্সার হওয়া এবং তাতে মৃত্যুর ঝুঁকি বেশী থাকে স্বাস্থ্যকর ওজনের মানুষের চাইতে। এর মাঝে রয়েছে ব্রেস্ট, ওভারী, কিডনি, প্যানক্রিয়াস, কোলন, রেকটাম এবং বোনে ম্যারোতে হওয়া ম্যালিগনেন্সি, জানা যায় একটি নতুন রিসার্চ রিভিউতে। সারা পৃথিবীতে মানুষের মৃত্যুর একটি বড় কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ক্যান্সার।

এর পাশপাশি মানুষের ওবেসিটি হবার ব্যাপারটাও দেখা যাচ্ছে অনেক বেশী। অনেকদিন ধরেই ধারণা করা হত যে বিভিন্ন ধরণের টিউমার হওয়া এবং তাতে মৃত্যুর সম্ভাবনার সাথে যোগ আছে অতিরিক্ত ওজনের। কিন্তু এবার এই গবেষণায় শক্ত প্রমাণ পাওয়া গেছে যে ১১ ধরণের ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায় ওবেসিটি। সারা পৃথিবীতে ১.৯ বিলিয়ন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ ওবেসিটিতে ভুগছেন, জানা যায় ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন থেকে।

বলা যায়, প্রতি ১০ জনে ৪ জন মানুষের ওজন যা থাকা উচিৎ তার চাইতে বেশী, আর দশজনে একজন ওবিস। এই সমস্যাটির কারণে বাড়ে হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, কিডনির সমস্যা এবং অস্থিসন্ধির বিভিন্ন রোগ। আর ক্যান্সারের ঝুঁকি তো আছেই। সাম্প্রতিক এই গবেষণার জন্য ২০৪ টি বিভিন্ন গবেষণার ফলাফল বিশ্লেষণ করে। এসব গবেষণায় ওবেসিটি, ওজন বাড়া, কোমরের মাপের সাথে ৩৬টি ক্যান্সারের যোগসূত্র বিবেচনা করা হয়। বিশেষ করে আগের গবেষণাগুলোর ফলাফলে অতিরঞ্জন করা হয়ছিল কিনা অথবা ক্যান্সার ও ওবেসিটির মাঝে খুব ছোট সুত্র পাওয়া গিয়েছিল কিনা এ ব্যাপারগুলো বিবেচনায় রাখা হয়।

extra-wait

গবেষণা শেষে দেখা যায়, ওবেসিটির সাথে শক্ত যোগসূত্র আছে পরিপাকতন্ত্রের বিভিন্ন ক্যান্সার এবং নারীর হরমোন সংক্রান্ত ক্যান্সারগুলোর। গবেষকেরা যখন বডি মাস ইনডেক্স বা বিএমআই এর তথ্যগুলো দেখেন (উচ্চতা এবং ওজনের একটি অনুপাত), দেখা যায় বিএমআই বেশী হলে অর্থাৎ মানুষ বেশী মোটা হলে ইসোফ্যাগাস, বোন ম্যারো, বিলিয়ারি ট্র্যাক্ট সিস্টেম, প্যানক্রিয়াস এবং কিডনির ক্যান্সার বেশী হয়। এর সাথে সাথে কোলন এবং রেকটাল ক্যান্সার বাড়ে পুরুষে এবং এন্ডোমেট্রিক্যাল ম্যালিগন্যান্সি বাড়ে কমবয়সী নারীতে।

১৮.৫ থেকে ২৪.৯ পর্যন্ত বিএমআই থাকলে তার মানে আপনার ওজন স্বাস্থ্যকর। ২৫ থেকে ২৯.৯ বিএমআই থাকে বেশী ওজনের মানুষের। ৩০ এর বেশী হলে তাকে বলা হয় ওবিস এবং ৪০ এর উপরে হলে তাকে বলা হয় মরবিডলি ওবিস। বিএমআই প্রতি ৫ একক বাড়লে পুরুষের মাঝে রেকটাল ক্যান্সারের ঝুঁকি বৃদ্ধি ৯ শতাংশ থেকে বিলিয়ারি ট্র্যাক্ট সিস্টেমে ক্যান্সারের ঝুঁকি বৃদ্ধি ৫৬ শতাংশ পর্যন্ত হতে পারে। নারীর মাঝে বেশী জরুরী ব্যাপার হলো ওজন বাড়া এবং এক্সট্রা বেলি ফ্যাট, ওয়েইস্ট-টু-হিপ সারকামফারেন্স রেশিও বাড়লে তা কিছু কিছু ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়।

মেনোপজের পর নারীদের ব্রেস্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে। কতটুকু বাড়ে? প্রতি ৫ কিলোগ্রাম ওজন বাড়ার ফলে ১১ শতাংশ বাড়ে ক্যান্সারের ঝুঁকি। মেনোপজ সিনড্রোম কমানোর জন্য হরমোন গ্রহণ করলে আরও বাড়ে এই ঝুঁকি। এছাড়া পেটে মেদ জমাও ভয়ের কারণ। ওয়েইস্ট-টু-হিপ রেশিওতে ০.১ ইউনিট বৃদ্ধির ফলে আবার ২১ শতাংশ বাড়ে এন্ডমেট্রিক্যাল ক্যান্সারের ঝুঁকি। বিএমআই বৃদ্ধি, ওজন বৃদ্ধির সাথে জড়িত কলোরেক্টাল ক্যান্সার, গলব্লাডার ক্যান্সার, স্টমাক ক্যান্সার এবং ওভারিয়ান ক্যান্সারের ঝুঁকি। সেই সাথে বাড়ে বোন ম্যারো টিউমারে মৃত্যুর সম্ভাবনা।

তবে এই গবেষণার একটি দুর্বল দিক আছে। তারা কোনো কন্ট্রোল্ড এক্সপেরিমেন্ট করেননি যার মাধ্যমে সরাসরি বোঝা যায় ওবেসিটি ক্যান্সারের জন্য দায়ী। বডি ফ্যাট বাড়ার সাথে ক্যান্সারের যোগসূত্র নিয়ে আরও বিশদ গবেষণা জরুরী। তবে এ থেকে একটি ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যায়, সেটা হলো প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের জন্য ওজন বাড়া প্রতিরোধ এবং অতিরিক্ত ওজন কমানো ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।