‘অসাধ্য সাধনের জন্যই বার্সেলোনা, এজন্যই বার্সা বিশ্বসেরা’

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক – অসম্ভবকে সম্ভব করার এক নজির গড়ে পিএসজিকে উড়িয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে তখন লুইস এনরিকের দল। বার্সার ডাগআউটে কে কাকে জড়িয়ে ধরছেন হিসেব রাখা দূরহ। ক্যামেরা খুঁজে নিচ্ছে ইতিহাস গড়া মুখগুলোকে। ইভান রাকিটিচ সেসময় মাইক্রোফোনের সামনে জানিয়ে গেলেন আসল কথাটা। বললেন, এমনসব অসাধ্য সাধনের জন্যই দলটি বার্সেলোনা। বিশ্বসেরা।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বুধবার রাতে শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে শেষমুহুর্তের ম্যাজিকে পিএসজিকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে সেরা আটে পা রেখেছে কাতালানরা। প্রথম লেগে পিএসজির মাঠে ৪-০ গোলে হেরে আসা দলটি ন্যু ক্যাম্পে ঘুরে দাঁড়াল। গড়ল ইতিহাস। নক আউটে প্রথম লেগে এত গোলে পিছিয়ে পড়ে আর কেউই ফিরে আসতে পারেনি আগে। কিন্তু দুই লেগ মিলিয়ে ৬-৫ গোলে কোয়ার্টারে এখন মেসি-নেইমাররাই।

দুর্দান্ত এই জয়ের পরপরই ইভান রাকিটিচকে খুঁজে নিয়েছিল ক্যামেরা-মাইক্রোফোন, ‘এটা অবিশ্বাস্য, বিশ্বাসই করতে পারছি না এটা ঘটেছে। অসম্ভব এক লক্ষ্য ছিল। আমরা বিশ্বাস করতাম, আমরা সেটা করতে পেরেছি।’

barsa-win

পিএসজির মাঠে প্রথম লেগে বড় হারের পর প্রচুর সমালোচনা শুনতে হয়েছে বার্সাকে। সেগুলো খেলোয়াড়দের পুড়িয়েছে বেশ। রাকিটিচের কথাতে সেটাই সামনে এলো আরেকবার। কঠিন সময়ের পর ইতিহাস। তবুও রাকিটিচ দুঃসময়টা ভুলছেন না, ‘প্রথম পর্বের পর অনেক কথা হয়েছে। কঠিন প্রতিক্রিয়া বরাদ্দ ছিল আমাদের জন্য। এই জয়টা তাই বিশেষ কিছু। বার্সেলোনা এটাই, এজন্যই দলটি বিশ্বসেরা।’

খাদের কিনারা থেকে ঘুরে দাঁড়ানো গেছে। এখন শিরোপাটা উঁচিয়ে ধরার স্বপ্ন বোনাই যায়। রাকিটিচও সেটাই মনে করিয়ে দিলেন। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বার্সার স্বপ্নকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা বললেন। কোচ, সতীর্থ, সমর্থকদেরও ধন্যবাদ জানালেন। পরমুহূর্তেই আবার ভাষা হারিয়ে ফেললেন। মাইক্রোফোনের সামনে কথা আটকে গেল তার। সেটাই তো হওয়ার কথা। বার্সার ইতিহাস গড়ার প্রতিনিধিদের তো এখন কথা বলার সময় নয়, সময় কেবল উদযাপনের।