নীলফামারীর চিলাহাটি থেকে চালু হল সব আন্ত:নগর ট্রেন

মোঃ মহিবুল্লাহ্ আকাশ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, নীলফমারী:

বাংলাদেশের উত্তরের শেষ প্রান্তে অবস্থিত সীমান্ত ঘেষা চিলাহাটি রেল ষ্টেশন অবশেষে যাত্রীদের পদচারণায় প্রান চাঞ্চল্য ও মুখরিত হয়ে উঠল। দীর্ঘদিন থেকে অবহেলিত ও উপেক্ষিত থাকা নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার ভোগডাবুরী ইউনিয়নের ভারত সীমান্তে অবস্থিত চিলাহাটি রেল ষ্টেশনটি পেল পূর্ণতা। শেখ হাসিনার সরকারের আমলে চিলাহাটি তথা নীলফামারীর ডোমার, ডিমলা, জলঢাকা, পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ, বোদা উপজেলার মানুষের প্রানের দাবী পূরণ হল। চলতি মাসের ৬ মার্চ চিলাহাটি থেকে সকাল ৮টায় রূপসা এক্সপ্রেস (৭২৭) খুলনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার মাধ্যমে আন্তঃনগর ট্রেনের দাবী পূরন হয় এ অঞ্চলের মানুষের। এবং একই দিন সন্ধা ৬ টা ৪৫ মিনিটে সীমান্ত এক্সপ্রেস (৭৪৭) খুলনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এছাড়াও চিলাহাটি থেকে চলতি মাসেরই ১লা মার্চ চালু হয় রাজশাহীগামী বরেন্দ্র এক্সপ্রেস । দুপুর ৩টায় রাজশাহী থেকে ছেড়ে রাত ৯.৫০ মিনিটে চিলাহাটি পৌছাবে ট্রেনটি এবং ভোর ৫.৫০ মিনিটে চিলাহাটি থেকে ছেড়ে যাবে রাজশাহীর উদ্দেশ্যে।

এর আগে বহু তিতীক্ষা ও আন্দোলনের পর ২০১৫ সালে ২৮ জানুয়ারী চালু হয় চিলাহাটি থেকে ঢাকা গামী নীলসাগর এক্সপ্রেস। ২০১৭’র ২৪ জানুয়ারী নতুন রুপে ইন্দোনিশিয়া থেকে আমদানিকৃত লাল-সবুজ এমজি কোচ দিয়ে নীলসাগরকে কমলাপুর ঢাকা পর্যন্ত নতুন রুপে চালু করা হয়।

এ লক্ষ্যে রেলবান্ধব আওয়ামীলীগ সরকার চিলাহাটী পর্যন্ত আন্ত:নগর ট্রেন চলাচলের জন্য ২০১১ সালে ১৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে সৈয়দপুর-চিলাহাটি রেলসড়ক মেরামতের প্রকল্প হাতে নেয়। চিলাহাটি থেকে আন্তঃনগর সব ট্রেন ছেড়ে যাওয়ার জন্য চিলাহাটিতে ওয়াস ফিট স্থাপন, লাইন সম্প্রসারণ ও অবকাঠামো তৈরিসহ যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করা হয়। উত্তরের বাণিজ্যিক শহর সৈয়দপুর থেকে চিলাহাটি পর্যন্ত ৬২ কিলোমিটার রেলপথ ও চিলাহাটি, মির্জাগঞ্জ, ডোমার, তরনীবাড়ী, নীলফামারী, নীলফামারী কলেজ, দারোয়ানি ও সৈয়দপুর স্টেশন নতুনভাবে নির্মাণ ও সংস্কার করা হয়।

treen-chilhatiপ্রসঙ্গত, ব্রডগেজ লাইনের ঢাকাগামী আন্তঃনগর নীলসাগর, খুলনাগামী আন্তঃনগর রূপসা ও সীমান্ত এক্সপ্রেস, রাজশাহী গামী বরেন্দ্র এক্সপ্রেস সৈয়দপুর ও সর্বশেষ নীলফামারী থেকে চলাচল করতো। আর একটি মাত্র ট্রেন আন্ত:নগর তিতুমির এক্সপ্রেস চলাচল করতো চিলাহাটি-ডোমার হয়ে রাজশাহী পথে। ফলে, ডোমার-চিলাহাটি বাসী ঢাকা ও খুলনা রুটে চলাচলকারী আন্তঃনগর ট্রেনগুলো থেকে বঞ্চিত ছিল। এবং ঢাকাগামী আন্তঃনগর নীলসাগর এক্সপ্রেসসহ বিভিন্ন রুটের সকল আন্তঃনগর ট্রেনের চলাচল ডোমারের সীমান্ত রেলস্টেশন চিলাহাটি পর্যন্ত বাড়ানোর দাবিতে ট্রেন আটকে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে ছাত্র, জনতা ও যাত্রীরা।