‘আঃলীগ সরকার সংবিধানকে বাইবেলে পরিণত করেছে’

সময়ের কণ্ঠস্বর – আওয়ামী লীগ সরকার সংবিধানকে বাইবেলে পরিণত করেছে’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ( ডিআরইউ) বৃহস্পতিবার দুপুরে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) কর্তৃক আয়োজিত তারেক রহমানের ১১তম কারাবন্দী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এর আগে বলেছিলেন, ‘সংবিধানে সহায়ক সরকারের কথা উল্লেখ নেই’। তার এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সংবিধান কাদের জন্য। সংবিধান তো মানুষের জন্য। মানুষের প্রয়োজনেই সংবিধান পরিবর্তন করা যায়। কিন্তু এখন তো সংবিধানকে আপনারা বাইবেলে পরিণত করেছেন। এর কোনো পরিবর্তন করা যাবে না।’

‘এটি বলে মানুষকে বোকা বানানো হচ্ছে’ বলেও অভিযোগ করেন তিনি। ফখরুল আরো বলেন, ‘দলীয় সরকারের অধীনে তো আপনারা নির্বাচন চাইবেনই। কারণ জনগণ থেকে তো আপনারা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন। কয়েকটি নির্বাচনেই তার প্রমাণ পাওয়া গেছে।’

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘নিরাপত্তা ও সামরিক চুক্তি করবেন কিন্তু দেশের জনগণ জানবে না- এটা গণতন্ত্র নয়। কোনো চুক্তি হলে দেশের জনগণের জানার অধিকার আছে।’

mirja fokhrul

তারেক রহমানের উপর নির্যাতনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘১/১১ সরকারের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সরকারের মধ্যে মৌলিক কোনো পার্থক্য নেই। তারা একই এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছে। শেখ হাসিনা নিজেই এই সরকারকে আন্দোলনের ফসল বলেছিলেন। একই সাথে এই সরকারের সকল কার্যক্রমের বৈধতা দেয়া হবে বলে জানিয়েছিলেন তিনি।’

দেশে বিএনপির নেতাকর্মীসহ জনগণের উপর নির্যাতনের কথা উল্লেখ মির্জা ফখরুল বলেন, ‘জনগণ ছাড়া আমাদের কোনো বিকল্প নেই। জনগণের কাছে বিচার দিতে হবে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আমাদের সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করতে হবে।’

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ আওয়ামী লীগ সরকারের উদ্দেশে বলেন, ‘বাংলাদেশকে তারা পৈতৃক সম্পত্তি মনে করে। ঘাট, মাঠ সবই তাদের। তাদের বিরুদ্ধে যারা কথা বলবে তাদের গ্রেফতার, জেল-নির্যাতন করে দমীয়ে রাখা হবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের দেওয়া বক্তব্য, ‘সংবিধানে নির্দলীয় সরকারের কোনো কথা উল্লেখ নেই’- এর সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘সংবিধানে কী তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কথা লেখা ছিল? তখন তো নিজেদের প্রয়োজনে সংবিধান পরিবর্তন করেছিলেন। তার মানে, নিজেদের প্রয়োজনে যখন ইচ্ছা সংবিধান পরিবর্তন করবেন আর অন্যের জন্য সংবিধানের উপর পাথর চাপা দিয়ে রাখবেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশকে এককভাবে শাসন ও দখল করে রাখার জন্যই তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে। তার উপর এতো নির্যাতন চালানো হয়েছে।’

সংগঠনের সহ-সভাপতি এমএ কুদ্দুছের সভাপতিত্বে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এজেডএম জাহিদ হোসেন-সহ ড্যাবের নেতাকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।