মিয়ানমারে আটক জেলেদের ফিরিয়ে আনার দাবিতে মহিপুরে নৌযান শ্রমিক ইউনিয়নের মানব বন্ধন

egt


জাহিদ রিপন, পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

মিয়ানমারে আটক নয় বাংলাদেশী জেলেকে দেশে ফিরিয়ে আনার দাবীতে মানববন্ধন কুয়াকাটা-মহিপুরে নৌযান শ্রমিক ইউনিয়ন। বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় মহিপুর শেখ রাসেল সেতুসংলগ্ন মানববন্ধনে আটক জেলে পরিবারের সদস্যরা ছাড়াও এালাকার সকল শ্রেনী-পেশার মানুষ অংশগ্রহন করে। এসময় বক্তব্য রাখেন, নৌযান শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক জাকির হোসেন, নারায়নগঞ্জ শাখার সহ-সভাপতি কামাল মুন্সি, আলীপুর মৎস্য আড়ৎদার সমিতির সভাপতি আনছারউদ্দিন মোল্লা, মহিপুর নৌযান শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ইসমাইল হোসেন রানা, সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন প্রমুখ। বক্তারা, আটত জেলেদের অবিলম্বে দেশে ফেরত আরার দাবী জানান।

উল্লেখ্য, ১৩ জানুয়ারী এফবি ফয়সাল নামের ট্রলারে কুয়াকাটা থেকে ১০ জেলে গভীর সমুদ্রে মৎস্য শিকারে যায়। জেলেরা ফিরে না এলে ৪ ফেব্রুয়ারী মহিপুর থানায় একটি সাধারণ ডাইরী করা হয়। ১৭ ফেব্রুয়ারী ‘মিয়নমার টাইমস’ও গ্লোবাল নিউ লাইট অফ মিয়ানমারসহ একাধিক পত্রিকায় আটকৃত জেলেদের ছবিসহ সংবাদ প্রকাশ হয়। বিষয়টি মায়নমারের রাখাইন প্রদেশের হেড অব বাংলাদেশ কনস্যুলেট (অকিয়াব) শাহ আলম খোকন মুঠোফোন পরিবারের সদস্যদের অবহিত করেন।

পত্রিকা প্রকাশিত সংবাদে জানা যায়, মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশের গোয়া শহরের ১৮ মাইল উত্তরের জি গোনি গ্রামের থেকে দুই নটিক্যাল মাইল দুরে সাগর থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারী এসব জেলেদের উদ্বার করে গোয়া টাউনশিপ পুলিশ। পটুয়াখালীর মহিপুর থানার সদর ইউনিয়নের সেরাজপুর গ্রামের শাহ আলমের ছেলে কাওসারের মৃতদেহ উদ্বার করে মিয়ানমার পুলিশ। তিনি জেলেদের সাথে বেশ কয়েকবার যোগাযোগের চেস্টা করেছেন। কিন্তু মায়ানমার সরকারের অনুমতি না মেলায় পারেননি।