পহেলা ডিসেম্বরকে মুক্তিযোদ্ধা দিবস পালনের প্রস্তাব

সময়ের কণ্ঠস্বর- পহেলা ডিসেম্বরকে মুক্তিযোদ্ধা দিবস পালনের জন্য সংসদে প্রস্তাব তুলেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। শনিবার জাতীয় সংসদে ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবস পালনের প্রস্তবের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

1462290322তিনি বলেন, আমাদের সশস্ত্রবাহিনী দিবস আছে, অন্যান্য দিবস আছে। যেহেতু মুক্তিযুদ্ধে ১৬ ডিসেম্বর আমাদের বিজয়ের মাস। পহেলা ডিসেম্বরকে আমরা মুক্তিযোদ্ধা দিবস হিসেবে পালন করতে পারি কি না, এটা বিবেচনা করার জন্য জাতীয় সংসদে উত্থাপন করছি।

সংসদ অধিবেশনের শুরুতেই বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানী বর্বর হানাদার বাহিনী কর্তৃক ২৫ মার্চ নির্বিচারে সাধারণ মানুষ হত্যার দিনটিকে গণহত্যা দিবস হিসেবে পালনের প্রস্তাব উত্থাপন করেন ফেনী-১ আসনের জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের এমপি শিরীন আখতার।

প্রস্তাবে শিরীন আক্তার উল্লেখ করেন ‘সংসদের অভিমত এই যে, ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাত্রিতে বর্বর পাকিস্তানি সেনাবাহিনী কর্তৃক সংঘটিত গণহত্যাকে স্মরণ করে ২৫শে মার্চকে গণহত্যা দিবস ঘোষণা করা হউক এবং আন্তর্জাতিকভাবে এ দিবসের স্বীকৃতি আদায়ে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হউক।’

তবে এ প্রস্তাবটি সংশোধিত আকারে গৃহীত হওয়ার জন্য সংসদকে আহ্বান জানান তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, ‘প্রস্তাবটি সংশোধিত আকারে এখানে গৃহীত হয় তাহলে এটা খুব সুন্দর হবে।’