সুবর্ণচরে সমাজ উন্নয়নে কাজ করছে রোভার স্কাউট গ্রুপ

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার স্বনামধন্য বিদ্যাপিঠ চর জব্বর ডিগ্রি কলেজ ১৯৯৩ইং সালের পথচলায় ২০১৬ইং সালের ৩১ ডিসেম্বর পূর্ণাঙ্গ প্রতিষ্ঠিত এক ঝাঁক চৌকষ রোভার দল নিয়ে এবং একাদশ জাতীয় রোভার মুটে “সৈয়দ নজরুল ইসলাম ভিলেজের” মধ্যে আমার চ্যালেঞ্জে ‘মোবাইলগ্রাফি’ ইভেন্টে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করায় গর্ভের সীমা নেই কলেজ গভর্ণিং বডির সদস্য, শিক্ষক কর্মচারী, ছাত্র-ছাত্রীসহ এলাকাবাসীর।

askaut

রোভারিং এর মটো সেবা তাই স্কাউটের জনক স্যার রবার্ট স্টিফেনশন স্মিথ লর্ড ব্যাডেন পাওয়েল অব গিলওয়েল এর প্রবর্তিত সাতটি আইনকে বুকে লালন করে সমাজ সেবা করার মধ্যে সোনার সুবর্ণচরকে নতুন উদ্যমে পরিচয় করাতে চায় স্কাউটিং আন্দোলনের এই গর্বিত সদস্যরা।

নতুন বছরকে ঘিরে নানামুখি কর্মসুচী আছে তাঁদের, এরি মধ্যে প্রতি মাসের ১ তারিখ কলেজ আঙ্গিনা পরিষ্কার আব্দুল্যাহ মিয়ার হাট জুনিয়র স্কুল, আইডিয়াল মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, হোসেনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চর জুবিলী অলিউল্যাহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন এবং স্কাউট ও কাব স্কাউট দল ঘঠনে ভুমিকা রাখেন। কলেজ ক্যাম্পাসে পরিবেশ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ২টি ফুলের বাগান এবং মানুষের ব্যাহত যাতায়াত ব্যাবস্থা সুরুক্ষায় সড়ক মেরামত এর মত সেবা করে সম্প্রতি আলোচনার শীর্ষে আসে চর জব্বর ডিগ্রি কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুপ।

কথা বলা হয় চর জব্বর ডিগ্রি কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুপ এর সিনিয়র রোভার মটো (দলনেতা) মহিব উল্যাহ মহিব এর সাথে। জানতে চাওয়া হয় এ ধরনের কাজের পিছনে উৎসাহ, উদ্দিপনা যোগান দাতা কে? উত্তরে ফুটে আসে আমি কাবিং, স্কাউটিং এবং রোভারিং করে আসতেছি। এ দীর্ঘদিনের মহান আন্দোলনে যাদের সর্বাত্বক সাহায্য পেয়েছি তাঁরা হলেন আমার শিক্ষা গুরুজন, দক্ষিণ চর জব্বর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক এবং কাব লিডার লাভলী ম্যাডাম, বর্তমান সুবর্ণচর উপজেলার স্কাউট’স এর কমিশনার জনাব নাছিম ফারুকী, উপজেলা স্কাউট’স এর সাধারণ সম্পাদক বাবু শিমুল চন্দ্র দাস এবং নোয়াখালী জেলা রোভার স্কাউটের কমিশনার ও চর জব্বর ডিগ্রি কলেজের মাননীয় অধ্যক্ষ এবং রোভার গ্রুপের সভাপতি জনাব মোঃ শাহাজান স্যারের মতো স্কাউট কর্মকর্তাদের সাহস, অনুপ্রেরণা, সহযোগিতা থাকায় আমরা এ ধরনের কাজে নিজেদের পড়াশোনার পাশাপাশি সমাজ সেবা করার মনোনিবেশ করার সুযোগ পাই।

এছাড়াও সিনিয়র রোভার মেট কে প্রশ্ন করা হয় আপনাদের আগামীতে আর কী ধরনের সেবামুলক কাজ করার পরিকল্পনা আছে ? “আসলে আমাদের পরিকল্পনা বলতে বর্তমানে একটাই লক্ষ যে, সুবর্ণচর উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্কাউটিং আন্দোলনকে গতিশীলন করার জন্য স্ব-স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহযোগিতা করা, অসচেতন মানুষদেও মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে গণসংয়োগ সৃষ্টি করা, পরিবেশ রক্ষায় দেশের কল্যাণে ভুমিকা পালন করা এবং এমন কিছু সমাজ সেবামুলক কাজ করা করার ইচ্ছা রয়েছে।”

ফুটন্ত এ সেবকদের সেবাকে আরো গতীশীল করার জন্য সমাজের সচেতন শিক্ষানুরাগী এবং চিন্তাশীল ব্যক্তিদের সাহায্য সহযোগীতা থাকলে অচিরেই মনুষ্যজাতীর সভ্যতার যে প্রচেষ্টা সে লক্ষে অগ্রসর হওয়া সম্ভব হবে।

“তোমরা পৃথিবীকে এসে যেমন পেয়েছো, তার চেয়ে সুন্দর করে রেখে যেতে চেষ্টা কর।” ব্যাডেন পাওলের এ বাণীটি’ই হতে পারে সমৃদ্ধশালী উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণের শক্তি।

চরজব্বর ডিগ্রী কলেজ রোভার স্কাউট এর অতীত, বর্তমান, ভবিষ্যৎ নিয়ে কলেজটির অধ্যক্ষ মোঃ শাহজাহান (সাজু) এর সাথে আলাপ কালে তিনি বলেন, অতীতের রোভার স্কাউট টিমটির চেয়ে বর্তমান রোভার স্কাউট টিম নিরলস ভাবে আন্তরিকতার সহিত কাজ করে ইতিমধ্যেই নোয়াখালীতে আলোচনার শীর্ষে চলে আসে। সম্প্রতি সুবর্ণচর উপজেলার চেয়ারম্যানঘাট সোনাপুরের প্রধান সড়কের পথে একটি ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজ (আলআমিন বাজার ব্রীজ) মেরামত করে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসেন। ঐ কাজে দলের অধিনায়ক মহিব উল্যাহ মহিবের নেতৃত্বে হাসান, রাসেল উল্যাহ, ওমর ফারুখ, ফাহিমা, মাজেদা, লিজা, দিলরুবা, রোকসানা, স্বর্ণা সহ ২৪ সদস্য অংশ নেন।

গত ৯ই মার্চ মাইজদীর রয়েল হাসপাতালে রক্ত দিয়ে রক্তদান কর্মসূচী পালন করেন। এতে অংশ নেন দলটির সদস্য রাসেল উল্যাহ, সাব্বির, ওমর ফারুখ, সালাহউদ্দিন, রবিন, বেলাল হোসেন, দিলরুবা তারা সকলেই নিজে রক্ত দিয়ে কর্মসূচী সফল করেন। জানুয়ারী ১৪-১৭ তারিখে এলাকায় বিদ্যুৎ সাশ্রয় সচেতনতা সৃষ্টি পরবর্তীতে বাল্য বিবাহ রোধ, যৌতুক প্রথা রোধ, গণসচেতনতা, সড়ক দুর্ঘটনা, পরিষ্কার পরিচ্ছনতা বিষয়ে প্রতি সপ্তাহে বিভিন্ন ইউনিয়নে হাট-বাজারে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

উপরোক্ত কার্যক্রমে কাব স্কাউট, স্কাউট, রোভার স্কাউটের প্রতি মানুষের প্রতি আস্থা বিশ্বাস জমতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই চরজব্বর ডিগ্রী কলেজ রোভার স্কাউট এর কার্যক্রমে জেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চলছে ভূয়সী প্রশংসা ও আলোচনা। শাহজাহান সাজু আরো বলেন, পূর্বের কোন কাজেই বৃহৎ কাজ নয়। এটা শুরু মাত্র পরবর্তীতে জনস্বার্থের আরো বৃহৎ কাজ করবে চরজব্বর ডিগ্রী কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুফ।