পুতিনের ক্ষমা পেয়ে অবশেষে মুক্তি পেলেন ৭ বছরের কারাদণ্ড পাওয়া এই নারী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক – রাশিয়ায় রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে এক নারীকে সাত বছরের দণ্ড দিয়েছিলো দেশটির আদালত। তবে প্রেসিডেন্ট পুতিন তাকে ক্ষমা করে দেওয়ায় অবশেষে মুক্তি পেলেন তিনি।

ওকসানা সিভাসতিদি নামের ওই নারীকে রবিবার সকালে মস্কোর লেফরটোভো কারাগার থেকে মুক্তি দেয়া হয়।

এরআগে, ২০০৮ সালে তিনি জর্জিয়ান এক বন্ধুকে মেসেজ পাঠিয়ে জানান যে রাশিয়ান ট্যাংক দেশটির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। আর এই কারণেই তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ আনা হয় রাশিয়াতে।

তবে বিচারকালে এই নারী তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ২০০৮ সালের আগস্টে জর্জিয়া আর রাশিয়া যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছিলো যখন জর্জিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হতে দক্ষিণ ওসেটিয়ায় আন্দোলন শুরু হয়।

seven years jal

সেসময় রাশিয়ান ট্যাংক দক্ষিণ ওশেটিয়ায় প্রবেশ করলে সেখানে বসবাসরত হাজার হাজার জর্জিয়ান নাগরিক ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যান।

পরবর্তীতে জর্জিয়ার বিচ্ছিন্নতাকামী দক্ষিণ ওসেটিয়া ও আবখাজিয়া অঞ্চলকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেয় রাশিয়া।

তবে রোববার পুতিনের ক্ষমা পেয়ে আদালত ত্যাগ করার সময় ওকসানা সিভাসতিদি এ ব্যাপারে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি। বিবিসি।