সার্ভার ক্রুটির কারণে দরপত্র ক্রয় করতে ব্যর্থ হলেন ঠাকুরগাঁওয়ের ঠিকারদাররা

কামরুল হাসান, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি:  ই-টেন্ডারের প্রধান উদ্দেশ্য ছিল স্বচ্ছতার সঙ্গে ঠিকাদার নিয়োগ। কিন্তু ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এ দরপত্র প্রক্রিয়ায় প্রভাবশালীদের সিন্ডিকেটের মাধ্যমে কাজ বাগিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে জেলা শিক্ষা প্রকৌশলী অধিদপ্তরের উপর। শিক্ষা প্রকৌশলী অধিদপ্তর প্রকল্পের আওতায় ৬৪ লাখ টাকায় ঠাকুরগাঁও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চাড়োল উচ্চ বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের উদ্বমুখি কাজের দরপত্র ক্রয়ের শেষদিন ছিল রবিবার। কিন্তু সকাল থেকে ঠাকুরগাঁও যমুনা ব্যাংকে ঠিকাদাররা দরপত্র ক্রয়ের জন্য আসলে ইন্টারনেটে সার্ভার ক্রুটির কারণ দেখিয়ে দরপত্র ক্রয় করতে পারেনি ঠিকাদারেরা। এ নিয়ে স্থানীয় ঠিকাদাররা ক্ষোভ প্রকাশ করে দরপত্র ক্রয়ের সময় বৃদ্ধির দাবি জানান। দরপত্র সূত্রে জানা গেছে, শিক্ষা প্রকৌশলী অধিদপ্তর পঞ্চগড় কতৃক ঠাকুরগাঁও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চাড়োল উচ্চ বিদ্যালয়ের একাডেমী ভবনের উদ্বমুখি কাজের জন্য ৬৪ লাখ টাকা ব্যয় দরপত্র আহবান করা হয়। দরপত্রের নম্বর ৮৭৮৫৭।

th1ব্যাংক ড্রাফের জন্য ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা আহবান করা হয়। যমুনা ব্যাংকে টাকা দেওয়ার শেষ দিন ছিল রবিবার। শেষ দিনে ঠিকাদাররা ব্যাংকে বিডি করতে আসলে ব্যাংক কতৃপক্ষ সার্ভারের কারণ দেখিয়ে টাকা জমা নেননি।

যমুনা ব্যাংক সিডিউল ত্রয়ের দায়িত্বরত কর্মকতা মোঃ কায়েস জানান, সকাল থেকে ইন্টারনেটের সমস্যার কারণে টাকা জমা নেওয়া যাচ্ছে না। এছাড়া বেলা ১২টার মধ্যে শিক্ষা অধিদপ্তর সার্ভার বন্ধ করে দিয়েছে।

ঠিকাদার আমিনুল ইসলাম জানান, অফিস চলাকালীন সময়ে ব্যাংকে টাকা জমা করা যাবে। কিন্তু যমুনা ব্যাংক সার্ভারের কারণ দেখিয়ে বেলা ১২টার মধ্যে টাকা জমা বন্ধ করে দিয়েছে। এর আগে আমরা বিকেল ৪টা পর্যন্ত টাকা জমার সুযোগ পেয়েছি। তাছাড়া শিক্ষা অধিদপ্তরের প্রকৌশলী প্রভাবশালীদের কাজটি বাগিয়ে দেওয়ার জন্য এমনটি করেছেন বলেন মন্তব্য করেছেন অনেক ঠিকাদার। যমুনা ব্যাংকের ঠাকুরগাঁও শাখার ম্যানেজার মুজাহিদুল ইসলাম জানান, সার্ভার আমরা নিয়ন্ত্রন করি না।

যে প্রতিষ্ঠান দরপত্র আহবান করেছে সার্ভার তারাই নিয়ন্ত্রন করে। সার্ভার বন্ধ হয়ে গেলে আমরা কিভাবে জমা করবো। ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মিনহাজুল ইসলাম জানান, শেষ দিনে যারা সময় মত ব্যাংকে টাকা জমা করতে পারেনি, সে ক্ষেত্রে আমাদের করার কিছু নাই। তবুও ঠিকাদার গণ যেহেতু অভিযোগ করেছেন বিষয়টি দেখা হবে।

ঠাকুরগাঁওয়ে বিষমিশ্রিত চা পান করে মুত্যু-২ : অসুস্থ-৪

ঠাকুরগাঁওয়ে চা পাতার বদলে ভুলক্রমে দানাদার বিষ দিয়ে তৈরি করা চা পান করে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। রোববার দুপুর ২টার দিকে সদর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের হরিন্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত দুই শিশু হলো হরিন্দা গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে সোহান (৭) ও সোহানা (২)। এ ঘটনায় আরও চারজন অসুস্থ হয়ে পড়েছে।

তারা হলেন, জমিলা (৫০), সরুফা (৪০), সাবিনা (২৫) ও সাদিয়া (৫)। তাদেরকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, রায়পুর ইউনিয়নের হরিন্দা গ্রামের আলাউদ্দিনের স্ত্রী জামেলা (৫০) বাড়িতে মেহমান আসলে চা তৈরির সময় চা পাতা না দিয়ে ভুলক্রমে দানাদার বিষ দিয়ে চা তৈরি করেন। সেই চা পরিবারের ছয়জন পান করেন। এসময় শিশু সোহান (৭) ঘটনাস্থলেই মারা যায়। তাৎক্ষণিকভাবে অন্যদের ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে সোহানা (২) মারা যায়।

হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক রফিকুল হক জানান, সকলকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি করে নেয়া হয়েছে। স্থানীয় চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম আমাদের প্রতিনিধিকে জানান, ঘটনাটি সত্য। এ ঘটনায় অসুস্থ চারজন বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি। ঠাকুরগাঁও থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান জানান, তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ঠাকুরগাঁওয়ে শিবিরের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী আটক

 ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ঢোলারাহাট ইউনিয়নের নিজ বাড়ী থেকে আলাল উদ্দীন আলাল (২৫) নামে এক শিবির নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। রবিবার ভোর রাতে তাকে আটক করা হয়। আটক আলাল উদ্দীন আলাল (২৫) ঢোলারহাট ধর্মপুর গ্রামের মৃত নাজিম উদ্দীন নাজু ছেলে এবং সে রুহিয়া থানা শিবিবের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী। th2রুহিয়া থানার ওসি খান মো. শাহরিয়ার বলেন, শিবির নেতা আলাল উদ্দীন আলাল নিজ বাড়ীতে বসে এলাকায় নাশকতার পরিকল্পনা করছিলেন। এমন সংবাদের ভিত্তিতে রবিবার ভোর রাতে তাঁর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া আটক শিবির নেতার বিরুদ্ধে গত ৫ই জানুয়ারি নাশকতার মামলা রয়েছে বলে জানান ওসি খান মো. শাহরিয়ার।

ঠাকুরগাঁওয়ে ওয়াজ মাহফিল থেকে আটক-৩
ঠাকুরগাঁও শহরে এক ওয়াজ মাহফিলে ধর্মীয় উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে এক জামায়াতকর্মীসহ তিন জনকে আটক করেছে পুলিশ। শহরের গোয়ালপাড়া এলাকা থেকে শনিবার রাতে তাদের আটক করা হয় বলে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি মশিউর রহমান জানিয়েছেন। আটকরা হলেন শহরের সরকারপাড়া মহল্লার প্রয়াত ইয়াকুব আলীর ছেলে জামায়াতকর্মী ইউনুস আলী (৪৯), একই মহল্লার প্রয়াত তবিব উদ্দীনের ছেলে তোফাকুল ইসলাম (৪৮) ও দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার সদর গ্রামের হাসান আলীর ছেলে শাহ আলম (২৪)। th3ওসি মশিউর রহমান বলেন, শহরের গোয়ালপাড়া এলাকায় এক ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করে স্থানীয়রা। এর জন্য পুলিশের কাছ থেকে কোনো অনুমতি নেয়নি তারা। “ওয়াজ মাহফিলে বক্তারা মুসল্লিদের উদ্দেশে ধর্মীয় উস্কানিমূলক বক্তব্য দিচ্ছেন সংবাদ পেয়ে রাত ১২টার দিকে অভিযান চালিয়ে তিন জনকে আটক করা হয়।” এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি মশিউর রহমান।