আজাদ জুট মিলে আগুন, ১৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষ‌তি

y


মোঃ ইউনুস আলী, লালম‌নিরহাট প্র‌তি‌নি‌ধি:

লালমনিরহাটের মহেন্দ্রনগরে আজাদ জুট মিলসে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় পাটসহ শেডঘর ভস্মিভূত ও মেশিন নষ্ট হয়। এ‌তে প্রায় ১৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় ঐ মি‌লের জুট স্করটিং শেড ঘরের বৈদ্যতিক মর্টার ত্রুটির কারনে অগ্নিকান্ডের ঘটনা‌টি ঘটে।

অগ্নিকান্ডের ঘটনায় তিনশ মন পাট, একশ মন ঝুট সম্পুর্ন ভস্মিভূত হয়। এছাড়াও জুট স্করটিং এর জন্য রিসাইকেল মেশিন‌টি (হটলার মেশিন) সম্পুর্ন ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে‌ছে।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের অগ্নি নির্বাপক কর্মীরা ওই মিলের শ্রমিকদের সহযোগিতায় এক ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনেন। এর আগে শ্রমিকরা নিজস্ব অগ্নি নির্বাপক ব্যবহার করে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালান।

জুট মিলস’র শ্রমিক ও কর্মচারীরা অভিযোগ করে বলেন, ফায়ার সার্ভিসের টিম দেড়িতে আসায় ক্ষতির পরিমান বেশী হয়েছে। ফোন দেয়ার সাথে সাথে তারা আসলে ক্ষতির পরিমান অনেকটাই কম হতো।
তারা আরও বলেন, ফায়ার স্টেশনটি জুট মিলস থেকে মাত্র আড়াই কিলোমিটার দুরে অবস্থ‌তি। এরপ‌রেও তারা ৪২ মিনিট বিলম্ব করে আসেন।

আজাদ জুট মিলস ২০১১ সালের জুলাই মাসে স্থাপিত হয়ে পাট থেকে বস্তা ও সুতলি প্রস্তুত করে আসছে। বর্তমানে এখানে চার শতাধিক শ্রমিক কাজ করছেন। আর এখান থেকে প্রতিদিন গড়ে ৫শ মেট্রিক টন চটের বস্তা ও সুতলি তৈরী হয়। যা দেশের বিভিন্ন স্থানে প্র‌তি‌দিন সরবরাহ করা হচ্ছে। জুট মিলসটি এ অঞ্চলের একমাত্র শিল্প কারখানা। দারিদ্র পীড়িত লালমনিরহাটের দিনমজুর শ্রমিকরা এখানে কাজ করে সংসার চালাচ্ছেন স্বচ্ছলতার সাথে।

জুট মিলসটির নির্বাহী পরিচালক (ইডি) মাহমুদুল হাসান জসিম জানান, আতং‌কিত হবার কিছুই নাই। অগ্নিকান্ডের কারনে আমরা শুধু রাতের শিফটি বন্ধ রেখেছি। মিলসটির কাযর্ক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। এ‌তে মা‌লিক পক্ষের ব্যাপক ক্ষতি হলেও শ্রমিকদের কর্মচাঞ্চল্যতা স্বাভাবিক রাখা হয়েছে।

লালমনিরহাট ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মতিয়ার রহমান জানান, ঐ মি‌লের জুট স্করটিং শেড ঘরের বৈদ্যতিক মর্টার ত্রুটির কারনে অগ্নিকান্ডের ঘটনা‌টি ঘটে।