প্রধানমন্ত্রীকে সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়ে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে থাকার আমন্ত্রণ

সময়ের কণ্ঠস্বর – ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে আগামী মাসে দিল্লি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই সফরে তাকে সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি ভবনে থাকার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। খবরটি নিশ্চিত করেছেন ভারতের রাষ্ট্রদূত হর্ষবর্ধন শ্রীংলা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর নিয়ে সোমবার (১৩ মার্চ) পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হকের সঙ্গে ভারতের রাষ্ট্রদূতের বৈঠক হয়েছে। এরপর তিনি সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে দিল্লিতে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে থাকার জন্য আমন্ত্রণপত্র দেওয়া হয়েছে। এটা সাধারণত অন্য কোনও দেশের রাষ্ট্রপতি বা প্রধানমন্ত্রীর ক্ষেত্রে দেখা যায় না।’

দিল্লিতে শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদির বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৮ এপ্রিল। ৭ থেকে ১০ এপ্রিল শেখ হাসিনার দিল্লি সফরের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে দুই দেশ। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর এ সফরের ফল (আউটকাম) সম্পর্কে ভারতের রাষ্ট্রদূত আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, ‘এ ধরনের একটি বড় সফর হবে আর তার ফলাফল থাকবে না তা তো হতে পারে না। আশা করি, এর ফলাফল সন্তোষজনক হবে।’

pm

গঙ্গা ব্যারেজ প্রকল্প বিষয়ে হর্ষবর্ধন শ্রীংলা বলেন, ‘এখানে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার সহযোগিতাপ্রবণ মনোভাব অনেক ইতিবাচক। দুই দেশের মধ্যে একটি যৌথ কারিগরি কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং এ বিষয়ে তারা সমীক্ষা চালাবে। বাংলাদেশ অংশে গঙ্গা ব্যারেজের প্রভাব কি তার স্টাডি হয়ে গেছে। এখন ভারতের অংশের প্রভাব জানতে হবে।’

২০০১ সালের নির্বাচনে ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা ‘র’-এর ভূমিকা নিয়ে গত ১১ মার্চ করা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মন্তব্য সম্পর্কে জানতে চাইলে হর্ষবর্ধন শ্রীংলা কোনও মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ ফেব্রুয়ারি ভারতের পররাষ্ট্র সচিব এস জয়শংকরের ঢাকা সফরকালে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হকের সঙ্গে শেখ হাসিনার দিল্লি সফরের প্রস্তুতিমূলক আলোচনা হয় তার। সফরের আলোচ্য কি হবে তা-ও নির্ধারণ করা হয় দুই পররাষ্ট্র সচিবের বৈঠকে। এর মধ্যে রয়েছে তিস্তা চুক্তি, গঙ্গা ব্যারেজ প্রকল্প, পানি, সংযোগ (কানেক্টিভিটি), জ্বালানি সহযোগিতা, বাণিজ্য ও বিবিআইএন (বাংলাদেশ-ভূটান-ভারত-নেপাল)।